• রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৪
ads
বাংলাদেশে বিশ্বের সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধির আশা অর্থমন্ত্রীর

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল

সংরক্ষিত ছবি

রাজস্ব

বাংলাদেশে বিশ্বের সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধির আশা অর্থমন্ত্রীর

  • গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১১ জানুয়ারি ২০১৯

চলতি অর্থবছরে বিশ্বের সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি অর্জন হবে বাংলাদেশের। আর তা ৮ দশমিক ২৫ থেকে ৮ দশমিক ৩০ শতাংশে পৌঁছে যাবে বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। গতকাল বৃহস্পতিবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বিশ্বব্যাংক বলত আমাদের সাড়ে ৬ শতাংশের বেশি প্রবৃদ্ধি হবে না। এবার বিশ্বব্যাংকই বলেছে আমাদের ৭ শতাংশের ওপর প্রবৃদ্ধি হবে। এ বছর আমাদের যে অর্জন হবে, এটি হবে বিশ্বের সর্বোচ্চ। উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সম্ভাবনা ২০১৯ (গ্লোবাল ইকোনমিক প্রসপেক্টাস) শীর্ষক প্রতিবেদনে চলতি অর্থবছর (২০১৮-১৯) বাংলাদেশের জিডিপির প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। এদিকে বাংলাদেশের সরকারি পূর্বাভাস অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ৮ শতাংশ হবে বলে আশা করা হচ্ছে, যা বিশ্বব্যাংকের প্রাক্কলন সরকারের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অনেক কম।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ এশিয়ার আটটি দেশের মধ্যে চলতি অর্থবছর প্রবৃদ্ধি অর্জনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান হবে তৃতীয়। আর ভুটান থাকবে প্রথম অবস্থানে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ভুটানের প্রবৃদ্ধি হবে ৭ দশমিক ৬ শতাংশ। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ভারতের প্রবৃদ্ধি হবে ৭ দশমিক ৩ শতাংশ। আর চলতি অর্থবছর দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক প্রবৃদ্ধি বেড়ে হবে ৭ দশমিক ১ শতাংশ। দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের মধ্যে বিশ্বব্যাংক মালদ্বীপে ৬ দশমিক ৩ শতাংশ, নেপালে ৫ দশমিক ৯ শতাংশ, পাকিস্তানে ৩ দশমিক ৭ শতাংশ এবং আফগানিস্তানে ২ দশমিক ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন করেছে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র-চীন বাণিজ্যযুদ্ধ এবং উৎপাদনে ধীরগতির কারণে ২০১৮ সালে বিশ্ব প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন আগের চেয়ে কমিয়ে ৩ শতাংশ নির্ধারণ করেছে বিশ্বব্যাংক। আর ২০১৯ সালে সেটি আরো কমে ২ দশমিক ৯ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads