• সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
জাবালে নূরের চার কর্মীকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর

গত রোববার জাবালে নূর পরিবহনের দুটি বাসের রেষারেষিতে প্রাণ হারায় দুই শিক্ষার্থী

ছবি: বাংলাদেশের খবর

দুর্ঘটনা

বাসচাপায় ২ শিক্ষার্থী নিহত

জাবালে নূরের চার কর্মীকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ৩১ জুলাই ২০১৮

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার জাবালে নূর পরিবহনের পাঁচ কর্মীর মধ্যে চারজনকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে র‍্যাব।

রাজধানীর ক্যান্টনমেন্ট থানায় গতকাল সোমবার রাতে তাদেরকে হস্তান্তর করা হয়। আরেক আসামিকে আজ মঙ্গলবার পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হবে।

পুলিশের ক্যান্টনমেন্ট জোনের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার তাপস কুমার দাস বলেন, পাঁচ আসামির সবাই পুলিশের হেফাজতে আসার পর পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এ ঘটনায় নিহত শিক্ষার্থী দিয়া খানম মীমের বাবা জাহাঙ্গীর আলম মামলা করেছেন।

গত রোববার রাতে মিরপুর থেকে জাবালে নূর পরিবহনের দুই চালক ও তাদের দুই সহকারীকে আটক করে র্যা ব-১ হয়েছে।  গতকাল সোমবার র‍্যাব-১-এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। আটক দুই বাসচালক হলো সোহাগ ও যুবায়ের।

গত রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জাবালে নূর পরিবহনের দুটি বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৯২৯৭ ও ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৭৬৫৭) মিরপুরের দিক থেকে বিমানবন্দর সড়কের দিকে আসার পথে ফ্লাইওভারেই একে অপরকে ওভারটেক করে পাল্লা দিয়ে নিচে নামছিল। উড়াল সড়কের গোড়ায় রমিজ উদ্দিন কলেজের কয়েক শিক্ষার্থী বাসের জন্য অপেক্ষা করছিল, কয়েকজন হেঁটে যাচ্ছিল। জাবালে নূর বাসে ওঠার সময় অপর গাড়িটি বামে ঢুকে চাপা দেয় শিক্ষার্থীদের। ঘটনাস্থলেই নিহত হয় এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্রী দিয়া খানম মিম ও দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবদুল করিম। আহত হয় সজীব, আরিসাসহ ১০-১২ শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে দুজনের অবস্থা গুরুতর। দুই সহপাঠীর মৃত্যুতে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা তাৎক্ষণিক প্রতিবাদে রাস্তায় নেমে শতাধিক গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads