• মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬
ads
সুনামগঞ্জে হাওরে নৌকাডুবি, ছয় শিশুসহ ৯ জনের লাশ উদ্ধার

ফাইল ছবি

দুর্ঘটনা

সুনামগঞ্জে হাওরে নৌকাডুবি, ছয় শিশুসহ ৯ জনের লাশ উদ্ধার

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ের কালিকোঠা হাওরে নৌকাডুবির ঘটনায় ৯ জনের লাশ উদ্ধারের কথা জানিয়েছে পুলিশ। এখনও একজন নিখোঁজ রয়েছেন।

দিরাই থানার ওসি কে এম নজরুল ইসলাম জানান, বুধবার সকালে ভোর ৬টার দিকে চারজনের ও বেলা ১০টার দিকে একজনের লাশ হাওর থেকে উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- দিরাই উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের মাছিমপুর গ্রামের রইতনু নেছা (৩৫), একই গ্রামের শান্তা বেগম (৪), চরনাচর ইউনিয়নের পেরুয়া গ্রামের করিমা বেগম (৬২) ও নোয়ার চর গ্রামের আসাদ মিয়া (৬) ও একই গ্রামের আজিরুন নেসা (৩০)।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার মাছিমপুর গ্রামের শামিম (২), আবির (৩), নোয়ারচর গ্রামের সোহান (২) ও আজমের (২) লাশ উদ্ধার করা হয় বলে জানান ওসি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের মাছিমপুর থেকে একটি যাত্রীবাহী নৌকা ২৫-৩০জন যাত্রী নিয়ে উপজেলার চরনাচর ইউনিয়নের পেরুয়া গ্রামে যাচ্ছিল। পথে রফিনগর ইউনিয়নের কালিয়াকুটা হাওরে দমকা বাতাসে নৌকাটি ডুবে যায়।

স্থানীয় রফিনগর ইউপি চেয়ারম্যান রেজুয়ান হোসেন খান জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় একটি ইঞ্জিনচালিত ট্রলার কালিকোঠা হাওরপাড়ের পেরুয়া থেকে ৩১ জন যাত্রী নিয়ে হাওরপাড়ের মাছিমপুরে যাচ্ছিল। ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলারটি মাছিমপুরের কাছাকাছি এসে ডুবে যায়। এসময় সাত যাত্রী সাঁতার কেটে পাড়ে ওঠেন। এলাকাবাসী চার শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে।

ইউপি চেয়ারম্যান রেজুয়ান হোসেন খান জানান, রাতে শিশু শামীম, আবির, সোহান ও শহীদুলের মরদেহ গ্রামবাসী উদ্ধার করে। ভোরে পুলিশসহ এলাকাবাসী ইঞ্জিনচালিত নৌকা নিয়ে খুঁজে আরও পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করে।

তিনি জানান, এখনও একজন নিখোঁজ রয়েছেন।

দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম নজরুল ইসলাম জানান, পুলিশ গ্রামবাসীকে নিয়ে উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads