• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
নবাবগঞ্জে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে মাল্টা চাষ

ছবি: বাংলাদেশের খবর

কৃষি অর্থনীতি

নবাবগঞ্জে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে মাল্টা চাষ

  • নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১১ অক্টোবর ২০১৯

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে মাল্টা চাষ। এই এলাকার মাটি মালটা চাষের জন্য উপযোগী। এতে হওয়ায় কৃষকরাও এ ফল চাষে বেশ আগ্রহী হয়ে উঠছেন। পাশাপাশি ভালো দাম পাওয়ায় মাল্টা চাষ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এই উপজেলাতে।

কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে গত ৩ বছর আগে উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে কয়েকজন কৃষকের মাঝে মাত্র ৫ বিঘা জমিতে বারী-১ জাতের সুস্বাদু মাল্টার চারা পরীক্ষামূলক চাষ করা হয়। এই প্রদর্শনী বাগানগুলোতে কম খরচে মাল্টার ভালো ফলন হওয়ায় উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বাণিজ্যিকভাবে মাল্টার চাষ শুরু করেছে কৃষকরা। চলতি বছরে প্রায় সব বাগানেই বিপুল পরিমাণ মাল্টার ফলন এসেছে। এসব মাল্টা প্রতি কেজি বিক্রি হয় দেড়শ টাকায় দরে। আবার অনেকে মাল্টা বাগান থেকে ফল উৎপাদনের পাশাপাশি বাড়তি আয় হিসেবে চারা তৈরি করে বিক্রি করছেন।

উপজেলার কুশদহ ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের জমসেদ আলী জানান তিনি ৩ বছর আগে মাত্র ২ বিঘা জমিতে ২শ মাল্টা চারা গাছ রোপণ করেন।  পরের বছর থেকে ফল আসা শুরু হয়। কম খরচে ভালো ফলন হওয়ায় তিনি চলতি বছরে প্রায় ১০ বিঘা জমিতে ১ হাজার ৪০০ মাল্টার গাছ রোপন করেছেন।

উপজেলার গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের কৃষক স্বাধীন জানান, কৃষি অফিসের সহযোগিতায় ২০১৭ সালে মাল্টা প্রদর্শনী বাগান করেন। পরে তিনি প্রশিক্ষণ নিয়ে চারা উৎপাদন শুরু করেন। বর্তমানে বিভিন্ন উপজেলা থেকে তার বাগানে চারা কিনতে আসছেন কৃষকেরা। এতে তিনি ভাল লাভবান হচ্ছেন।  

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু রেজা মো. আসাদুজ্জামান জানান, উপজেলায় ৭ হেক্টর জমিতে মাল্টা চাষ হয়েছে এবং ফলনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৮ থেকে ১০ টন। এখানকার উৎপাদিত মাল্টাও বেশ সুস্বাদু। পাশাপাশি ভাল ফলন ও দাম ভাল পাওয়ায় কৃষকরা মাল্টা চাষের দিকে ঝুঁকছে। নবাবগঞ্জ উপজেলার আবহাওয়া ও মাটি মাল্টা চাষে বেশ উপযোগী। মাল্টা চাষে কৃষকদের কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে সকল প্রকার পরামর্শ ও সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads