• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
ভুয়া ছবির জন্য ক্ষমা চাইল মিয়ানমার

মিয়ানমারের সেনাপ্রধান সিনিয়র জেনারেল মিন অং হ্লাইং

ছবি : ইন্টারনেট

এশিয়া

ভুয়া ছবির জন্য ক্ষমা চাইল মিয়ানমার

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও তানজানিয়ার গণহত্যার ছবিকে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের হাতে বৌদ্ধ নিধনের ছবি হিসেবে প্রচারের ঘটনায় ‘ভুল’ স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। এ ব্যাপারে মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জ হতে বা সেনাবাহিনীর মুখপাত্রের বক্তব্য তাৎক্ষণিকভাবে জানা না গেলেও সোমবার সেনাবাহিনীর নিজস্ব পত্রিকা ‘দ্য মিয়াওয়াদি ডেইলি’তে একটি বিবৃতি প্রকাশ করে সেনাবাহিনীর প্রকাশনা সংস্থাটি। ওই বিবৃতিতে বাংলাদেশ আর তানজানিয়ার ছবি দু’টি প্রকাশের জন্য ক্ষমা চাওয়া হয়।

গত জুলাইয়ে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ‘ডিপার্টমেন্ট অব পাবলিক রিলেশনস অ্যান্ড সাইকোলজিকাল ওয়ারফেয়ার’ থেকে প্রকাশিত একটি বইটি বিশ্লেষণ করে গত শুক্রবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনে বলা হয়, বইটিতে দু’টি ভুয়া ছবি পাওয়া গেছে, যেগুলো রাখাইন অঞ্চলের আর্কাইভ ছবি বলে দাবি করা হয়েছে। সেগুলো আসলে ভিন্ন দেশের, ভিন্ন ঘটনার। আর আরেকটি ছবি উল্টে ভুল ক্যাপশন দিয়ে ছাপানো।

বইয়ে থাকা সাদা-কালো একটি ছবিতে দেখা যায়, নদীতে ভাসমান দুটি লাশের পাশে এক ব্যক্তি দাঁড়িয়ে থাকা ব্যক্তির হাতে কৃষিকাজে ব্যবহৃত যন্ত্র। ছবির বিবরণে লেখা হয়েছে, ‘স্থানীয় ক্ষুদ্র জাতিসত্তার লোকজনকে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে বাঙালিরা’। এমনকি সেখানে দাবি করা হয়, ১৯৪০ এর দশকে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার সময় রোহিঙ্গা কর্তৃক বৌদ্ধদের হত্যার ছবি এটি। কিন্তু বাস্তবে সাদা-কালো এ ছবিটি বাংলাদেশের। ছবিটি বিশ্লেষণ করে রয়টার্স জানায়, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানি বাহিনীর চালানো গণহত্যার ছবি এটি।

আরেকটি ছবিতে দেখা গেছে, অসংখ্য মানুষ লাইন ধরে যাচ্ছে। ওই ছবির বর্ণনায় বলা হয়েছে, মিয়ানমারের নিম্নাঞ্চলীয় এলাকা ব্রিটিশ উপনিবেশের দখলে যাওয়ার পর বাঙালিরা মিয়ানমারে অনুপ্রবেশ করে। ওই ছবি বিশ্লেষণ করে রয়টার্স বলছে, ১৯৯৬ সালে রুয়ান্ডা গণহত্যা থেকে বাঁচতে তানজানিয়ায় পালাতে থাকা শরণার্থীদের ছবি এটি। রঙিন ছবিটিকে সাদা-কালো রূপ দেওয়া হয়েছে সেখানে। সাদা-কালো আরো একটি ভুয়া ছবিতে দেখা গেছে, একটি নৌকাভর্তি মানুষ। যার ক্যাপশনে লেখা, পানি পথ দিয়ে বাঙালিরা মিয়ানমারে প্রবেশ করছে।

রয়টার্স বলছে, মূল ছবিটি প্রবেশের নয়, বের হওয়ার। ২০১৫ সালে বাংলাদেশি অভিবাসী ও রোহিঙ্গারা নৌপথে মালয়েশিয়া ও থাইল্যান্ডে যাওয়ার চেষ্টা করার সময় ইয়াঙ্গুনের কাছে দক্ষিণাঞ্চলীয় উপকূল থেকে নৌকাটি আটক করেছিল মিয়ানমারের নৌবাহিনী। মূল রঙিন ছবিটিকে উল্টে দিয়ে এবং রঙ পরিবর্তন করে এমন করা হয়েছে।

‘দেখা গেছে যে, বইয়ে দু’টো ছবি ভুলভাবে প্রকাশিত হয়েছে। আমাদের ভুলের জন্য আমরা পাঠক ও ছবির মালিকদের কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমা চাইছি।’ তবে বিবৃতিতে ডিপার্টমেন্ট অব পাবলিক রিলেশনস অ্যান্ড সাইকোলজিকাল ওয়ারফেয়ার ভুল ক্যাপশন দেয়া তৃতীয় ছবিটির কোনো উল্লেখ করেনি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads