• শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৫
ads
ভারতের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেছে পাকিস্তান

ভারতের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেছে পাকিস্তান

সংগৃহীত ছবি

এশিয়া

ভারতের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেছে পাকিস্তান

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ০৭ আগস্ট ২০১৯

কাশ্মীর নিয়ে চলমান উত্তেজনায় ভারতের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেছে পাকিস্তান। একইসঙ্গে নিজেদের রাষ্ট্রদূতকেও নয়াদিল্লি থেকে প্রত্যাহার করে নিচ্ছে তারা। ফলে দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা আরও বেড়ে গেল।

রাষ্ট্রদূত বহিষ্কার এবং প্রত্যাহার সম্পর্কে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি বলেন, আমাদের রাষ্ট্রদূত আর নয়াদিল্লিতে থাকবে না এবং তাদের দূতকেও ফেরত পাঠানো হবে।

পাকিস্তানি গণমাধ্যম ডন জানিয়েছে, সম্প্রতি অধিকৃত কাশ্মীরের বিষয়ে ভারতের নেয়া পদক্ষেপের জেরে দেশটির সঙ্গে সব দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য স্থগিত এবং কূটনৈতিক সম্পর্ক সীমিত করাসহ পাঁচটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান।

আজ বুধবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে দেশটির ন্যাশনাল সিকিউরিটি কমিটি (এনএসসি) এসব সিদ্ধান্ত নেয়। ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার সিদ্ধান্তে উদ্ভূত পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতেই এই বৈঠক করে পাকিস্তানের শীর্ষ নিরাপত্তা সংস্থাটি।

এছাড়া এই বৈঠকে পাকিস্তান-ভারতের দ্বিপক্ষীয় কর্মসূচিগুলো পর্যালোচনা, বিষয়টি জাতিসংঘে নিয়ে যাওয়া এবং আগামী ১৪ আগস্ট পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসে কাশ্মীরিদের প্রতি সংহতি জানানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বৈঠকের পর জারি করা এক বিবৃতিতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী সব কূটনৈতিক চ্যানেলকে ভারতের পাশবিক বর্ণবাদী শাসনব্যবস্থা, নকশা এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়গুলো প্রকাশ্যে আনতে সক্রিয় হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন। ইমরান খান দেশটির সেনাবাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার নির্দেশও দিয়েছেন।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের ব্যাপারটি 'এক তরফা ও অবৈধ' দাবি করে বাণিজ্য সম্পর্ক স্থগিতের পর পাকিস্তানে থাকা ভারতের রাষ্ট্রদূত অজয় বিশরিয়াকে বহিষ্কার করা হয়।

উল্লেখ্য, সোমবার ভারতের রাজ্যসভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের ঘোষণা দেন। এর মধ্য দিয়ে ভারতনিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের ৭০ বছরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে নরেন্দ্র মোদির সরকার। সংবিধানের এই ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে জম্মু-কাশ্মীরকে ভেঙে দুই ভাগ করা হয়। ৩৭০ ধারার ফলে অনেক ক্ষেত্রেই স্বায়ত্তশাসিত ছিল জম্মু-কাশ্মীর। নিজস্ব সংবিধান, আলাদা পতাকা ও স্বতন্ত্র আইন বানানোর অধিকার ছিল ওই অঞ্চলের বাসিন্দাদের। তবে ৩৭০ ধারা বাতিলের ফলে এখন থেকে জম্মু-কাশ্মীরের পরিচিতি হবে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে। ভারত সরকারের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে মঙ্গলবার পার্লামেন্টে কঠোর সমালোচনা করেন ইমরান খান। জম্মু-কাশ্মীরে এখন জাতিগত নিধন চালানো হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads