• মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬
ads
ফের উত্তপ্ত কাশ্মীর, ভারতীয় সেনাসহ নিহত চার

ফের উত্তপ্ত কাশ্মীর

ছবি : ইন্টারনেট

এশিয়া

ফের উত্তপ্ত কাশ্মীর, ভারতীয় সেনাসহ নিহত চার

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীরে শনিবার দিনভর কথিত জঙ্গিদের সঙ্গে গুলির লড়াই করেছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। এতে ভারতীয় এক সেনা সদস্যসহ অন্তত চার জন নিহত হয়েছে। সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানায়, কথিত জঙ্গিদের সঙ্গে চলা গুলির লড়াইয়ে নিহত হন এক জওয়ান। তবে ওই সংঘর্ষে তিন কথিত জঙ্গিও নিহত হয় বলে জানিয়েছে ভারত সেনাবাহিনী।

ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কথিত জঙ্গিদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক জওয়ান নিহত হন। ওই সংঘর্ষে কথিত তিন জঙ্গি মারা গেছে। ভারতের সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রামবান জেলার বাটোতে দুই কথিত জঙ্গি জম্মু-শ্রীনগর জাতীয় সড়কে একটি যাত্রীবাহী বাস থামানোর চেষ্টা করে। বাসের চালক প্রথমে জঙ্গিদের দেখতে পায়। তাঁরা তখন ভারতীয় সামরিক পোশাক পরে ছিল। উপস্থিত বুদ্ধি কাজে লাগিয়ে বাসের অ্যাক্সেলরেটারের মাধ্যমে বাসের গতি বাড়িয়ে জঙ্গিদের ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়।

তারপর পুলিশকে ঘটনার কথা জানান ওই চালক। খবর পেয়ে সুরক্ষা বাহিনী এলাকাটি ঘিরে ফেলে এবং তল্লাশি অভিযান শুরু করে। একজন প্রত্যক্ষদর্শী এনডিটিভিকে বলেন, ‘আমি সেখানে দুটি বিস্ফোরণ শুনেছি।’

এদিকে এলাকায় বৃষ্টিপাত চলায় জঙ্গিদের খোঁজে তল্লাশি অভিযানক আরো জটিল করে তোলে। সূত্র জানায়, পাঁচজন জঙ্গি একটি বাড়িতে ঢুকে সেটিকে দখল করে ফেলে। বাড়িতে প্রবেশের আগে তারা নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলিও চালায়। সূত্র জানায়, নিরাপত্তা বাহিনী জঙ্গিদের দখলে থাকা বাড়িটিকে ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে সতর্কতার সঙ্গে অগ্রসর হয়। শেষ পর্যন্ত জঙ্গিদের কবল থেকে মুক্ত করা সম্ভব হয় বাড়িটি।

দ্বিতীয় ঘটনাটি ঘটেছে নিয়ন্ত্রণ রেখার (এলওসি) কাছে গেন্ডারবলে। সেখানে জঙ্গি হানা রুখে দেয় সুরক্ষা বাহিনী। ভারতীয় জওয়ানদের গুলিতে তিন জঙ্গি মারা গেছে বলে জানা গেছে। সূত্র জানায়, গেন্ডারবল এলওসির খুব কাছাকাছি হওয়ায় সেখান দিয়েই ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে জঙ্গিরা। সেনাবাহিনী বা পুলিশ এ বিষয়ে এখনো বিস্তারিত জানাতে পারেনি। তৃতীয় ঘটনাটি ঘটেছে শ্রীনগরে। জানা গেছে, সেখানে জঙ্গিরা একটি জনবহুল এলাকার আশেপাশে একটি গ্রেনেড ছোঁড়ে। ওই গ্রেনেড হামলায় কেউ আহত হয়নি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads