• বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭

এশিয়া

থাইল্যান্ডে জরুরি অবস্থা জারি

  • আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১৫ অক্টোবর ২০২০

বিক্ষোভ ঠেকাতে থাইল্যান্ডে জরুরি অবস্থা জারি করেছে দেশটির সরকার। ব্যাংককে বিক্ষোভ-সমাবেশ প্রতিহত করতেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বড় ধরনের জনসমাবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। খবর বিবিসির

পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বেআইনিভাবে বহু মানুষকে ব্যাংককে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সেখানে বিশাল সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। সরকারের দাবি, শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় রাখতে জরুরি অবস্থা জারির বিকল্প ছিল না। পুলিশের ঘোষণায় বলা হয়েছে, শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় রাখতে জরুরি অবস্থা জারির প্রয়োজন ছিল।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান-ওচার পদত্যাগের দাবিতে গতকাল বুধবার হাজারো বিক্ষোভকারী রাজধানীতে জড়ো হয়। তারা একইসঙ্গে রাজার ক্ষমতা খর্ব করার দাবিও জানায়। বিদেশভ্রমণ শেষে থাই রাজা মহা ভাজিরালংকর্নের দেশে ফেরাকে কেন্দ্র করে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে থাইল্যান্ড।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের ঘোষণায় বলা হয়, বিক্ষোভকারীরা বিশৃঙ্খলা তৈরি করছে এবং জনগণের শান্তি নষ্ট করছে।

বুধবার রাজদম্পতি বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন। সেখানেই অবস্থান নেয় বিক্ষোভকারীরা। দেশটির পুলিশ বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দেয়।

জরুরি অবস্থা জারি করায় গণজমায়েত নিষিদ্ধের পাশাপাশি গণমাধ্যমের ওপরেও খবর প্রকাশে বিধিনিষেধ জারি হচ্ছে। জাতীয় নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে এমন কোনো খবর প্রকাশ করতে পারবে না গণমাধ্যমগুলো।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, জরুরি অবস্থা জারির ফলে কর্তৃপক্ষ চাইলে সুনির্দিষ্ট কোনো এলাকায় মানুষের ঢোকা আটকাতে পারবে।

এই বিক্ষোভে নেতৃত্ব দিচ্ছেন শিক্ষার্থীরা। গত জুলাই মাস থেকে এ বিক্ষোভ শুরু হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads