• বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫
ads
ব্যাংকের পরিচালন মুনাফায় তারল্য সঙ্কটের ধাক্কা

ফেব্রুয়ারি থেকে তারল্য সঙ্কট চলছে প্রকট

প্রতীকী ছবি

ব্যাংক

ব্যাংকের পরিচালন মুনাফায় তারল্য সঙ্কটের ধাক্কা

  • সাইদ আরমান
  • প্রকাশিত ০২ জুলাই ২০১৮

চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে ব্যাংকে নগদ টাকার টানাটানি গেছে। ফেব্রুয়ারি থেকে তারল্য সঙ্কট প্রকট হয়। টাকার পাশাপাশি ডলারের সঙ্কটও সামনে এসেছে। এতে বেড়ে যায় সব ধরনের ঋণ ও আমানতের সুদ। কোনো কোনো ব্যাংক ১১ শতাংশ সুদে আমানত সংগ্রহ করে। এতে বিনিয়োগের সুদহার উঠে যায় ১৭-১৮ শতাংশে।

পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে সরকারের নীতি-সহায়তা চান বেসরকারি ব্যাংক মালিকরা। সঙ্কট কাটাতে নতুন নিয়মে সরকারি আমানতের ৫০ শতাংশ পাচ্ছে বেসরকারি ব্যাংক। কমানো হয়েছে নগদ জমার হার (সিআরআর)। সব তফসিলি ব্যাংকের মোট তলবি ও মেয়াদি দায়ের সাড়ে ৬ শতাংশ হারে সাপ্তাহিক ভিত্তিতে এবং ৬ শতাংশ দৈনিক হারে নগদ জমা সংরক্ষণ করার বিধান ছিল। সেটি পুনর্নির্ধারণ করা হয় সাপ্তাহিক ভিত্তিতে সাড়ে ৫ শতাংশ এবং দৈনিক ভিত্তিতে ৫ শতাংশ। আগ্রাসী ব্যাংকিং করে তারল্য সঙ্কটে পড়া ব্যাংকগুলোকে ঋণ আমানত হার নির্ধারিত সীমায় নামিয়ে আনতে আগামী বছরের মার্চ পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে।

তবে এরই মধ্যে ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে জুন সময়ের জন্য পরিচালনা মুনাফায় প্রবৃদ্ধি করেছে বেশিরভাগ ব্যাংক, যদিও তা খুব সামান্য। পরিচালন মুনাফা প্রকৃত মুনাফার চিত্র নয়। এর থেকে বিভিন্ন দায় পরিশোধ করে প্রকৃত মুনাফা হিসাব করা হয়।

ব্যাংকগুলো ব্যবসা প্রতিযোগিতায় নিজের অবস্থান শক্ত করতে পণ্য ও সেবায় বৈচিত্র্য এনেছে। এবারো মুনাফার শীর্ষে বেসরকারি খাতের ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড। ব্যাংকটি ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে জুন মেয়াদে মুনাফা করেছে ১ হাজার ২০ কোটি টাকা।

বেসরকারি সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক প্রথম ছয় মাসে পরিচালন মুনাফা করেছে ২৭৫ কোটি টাকা। আগের বছরে যা ছিল ২৫৫ কোটি টাকা। যমুনা ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ১৮৬ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ২৬৭ কোটিতে দাঁড়িয়েছে। এক্সিম ব্যাংক জুন পর্যন্ত ৩২৫ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করেছে। আগের বছর একই সময় ছিল ৩২০ কোটি। সাউথ বাংলা অ্যাগ্রিকালচার ও কমার্স ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়ে ৮৮ কোটি টাকা হয়েছে। ২০১৭ সালের প্রথম ছয় মাসে মুনাফা করেছিল ৬৩ কোটি। প্রিমিয়ার ব্যাংকের মুনাফা ২২৫ কোটি, যা আগের মেয়াদে ছিল ১৯৪ কোটি টাকা। সাউথইস্ট ব্যাংক ৪৩০ কোটি টাকা থেকে পরিচালন মুনাফা বাড়িয়ে করেছে ৪৫৪ কোটি টাকা। পূবালী ব্যাংকের ২০১৮ সালের প্রথম ছয় মাসের পরিচালন মুনাফা ৫৫৮ কোটি থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ৪৫৫ কোটি টাকায়। একইভাবে আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের মুনাফা ৩২০ কোটি থেকে কমে হয়েছে ২৬০ কোটি টাকা। দুই কোটি টাকা মুনাফা বাড়িয়েছে ডাচ্-বাংলা লিমিটেড। আগের বছর ছিল ২৯৩ কোটি। মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডের মুনাফা শতকোটি টাকা বেড়েছে। ২০১৭ সালে ব্যাংকটি পরিচালন মুনাফা করেছে ৩২৫ কোটি টাকা। আগের বছর ছিল ২২৪ কোটি।

মধুমতী ব্যাংক ৭৩ কোটি টাকা থেকে পরিচালন মুনাফা ৯০ কোটি টাকা করেছে। ট্রাস্ট ব্যাংকের পরিচালন মুনাফাও বেড়েছে দুই কোটি টাকা। প্রথমার্ধে ব্যাংকটির মুনাফা হয়েছে ২৯৫ কোটি টাকা। মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ২২৯ টাকা মুনাফা করেছে। আগের বছর ছিল ১৮০ কোটি। ৩৩৭ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করেছে ন্যাশনাল ব্যাংক। আগের বছর ছিল ৩০৮ কোটি। এনসিসি ব্যাংকের মুনাফা দাঁড়িয়েছে ২৯৭ কোটি টাকা। আগের বছর ছিল ২৩৭ কোটি। ৩০৭ কোটি টাকা থেকে ৪০৭ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা হয়েছে ব্যাংক এশিয়ার। ইস্টার্ন ব্যাংক ২০১৮ সালের প্রথমার্ধে ৩৬৫ কোটি টাকা মুনাফা করেছে। আগের বছর একই সময় করে ৩৫০ কোটি টাকা। এনআরবিসি ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ৭৭ কোটি টাকা। আগের বছর ছিল ৭২ কোটি।

শেয়ারবাজারে সংবেদনশীল তথ্য হওয়াতে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোর পরিচালন মুনাফা প্রকাশ করায় বিধিনিষেধ রয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটি অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের। ব্যাংকগুলো কমিশনকে তথ্য দেওয়ার পর তা ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। তবে এ জন্য কিছুদিন সময় লাগে।

ব্যাংকাররা বলছেন, বিভিন্ন প্রতিকূলতার মধ্যেও ব্যাংকগুলোর ঋণ ও আমানত বেড়েছে। তারা আশা করছেন, বছর শেষে ভালো অবস্থানেই থাকবে ব্যাংক খাত।

এদিকে, আজ তফসিলি ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গভর্নর ফজলে কবিরের সভাপতিত্বে বৈঠকটি দুপুরে বাংলাদেশ ব্যাংকে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। বৈঠকে আর্থিক খাতের সমসাময়িক বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads