• বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬
ads
খালে পাওয়া টাকার বস্তাগুলো বাংলাদেশ ব্যাংকের বাতিল নোট

সংগৃহীত ছবি

ব্যাংক

খালে পাওয়া টাকার বস্তাগুলো বাংলাদেশ ব্যাংকের বাতিল নোট

  • বগুড়া প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বগুড়ার শাজাহানপুরে খালের মধ্যে কয়েকটি বস্তায় ভর্তি পাওয়া টাকার টুকরোগুলো বাংলাদেশ ব্যাংকের বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ছিঁড়ে যাওয়ায় টাকাগুলো বাতিল হওয়ায় সেগুলো ফেলে দেওয়া হয়েছে।

শাজাহানপুর উপজেলার জালশুকা গ্রামের খেরুয়া ব্রিজ এলাকার চান্দাইমোড়ের একটি ডোবা থেকে কয়েক বস্তা টাকা জব্দ করা হয়, যেগুলোর সবই ছিল টুকরো করা। এসব টাকার মধ্যে ১০ টাকা থেকে শুরু করে এক হাজার টাকার নোটও ছিল। টাকাগুলো কে বা কারা ফেলে রেখেছে এ নিয়ে গুঞ্জন ওঠার কিছু সময় পরই বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে টাকাগুলো তাদের বলে জানানো হয়।

জানা গেছে, নষ্ট টাকাগুলো অপসারণের জন্য বগুড়া পৌরসভাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। বাংলাদেশ ব্যাংকের বগুড়া শাখার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক জগন্নাথ চন্দ্র ঘোষ জানান, টাকাগুলো বাংলাদেশ ব্যাংকের বাতিল করা টাকা। তাদের কাছে ১৮০০ বস্তা বাতিল নোটের টুকরো জমা আছে। তার মধ্যে ২৪০ বস্তা গত রোববার সন্ধ্যায় পৌরসভার ট্রাকে করে খাড়ুয়া ব্রিজের কাছে ফেলা হয়। এর মধ্যে ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার বাতিল নোট ছিল। আগে বাতিল করা টাকাগুলো আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হতো। আগুনে পোড়ালে ধোঁয়ায় পরিবেশের দূষণ হওয়ায় এখন এসব টাকা ভাগাড়ে ফেলা হয়।

বগুড়া পৌরসভার গাড়িচালক মাসুদ জানান, তিনি এবং আতাউল ও শহীদুল নামে আরো দুই চলক মিলে তিনটি ট্রাকে করে বাতিল টাকার বস্তা ওই এলাকায় ফেলে এসেছেন। তাদের বাড়ি ওই এলাকায় হওয়ায় তারা বস্তা ফেলার জন্য ওই খালকে বেছে নিয়েছেন বলে জানান। এ বিষয়ে বগুড়া পৌরসভার করজারভেসিভ কর্মকর্তা মামুনুর রশিদ বলেন, নষ্ট হওয়া টাকা বাংলাদেশ ব্যাংক অপসারণের জন্য পৌরসভাকে দায়িত্ব দিয়েছিল। তাদের কর্মীরাই ওই টাকাগুলো ওই স্থানে ফেলে আসে। শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজিম জানান, টাকাগুলো বাংলাদেশ ব্যাংকের বাতিল করা টাকা।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads