• শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
খেপেছেন আনুশকা

ছবি : সংগৃহীত

বলিউড

খেপেছেন আনুশকা

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০১ আগস্ট ২০১৯

ক্রিকেট বিশ্বকাপের শুরু থেকে এ পর্যন্ত সময়টা বেশ একটা ভালো যাচ্ছে না আনুশকা শর্মার। বিশ্বকাপ নিয়ে তার একটা বড় আশা ছিল। সে আশা পুরোটাই গুড়েবালি। ভারতের খেলায় মর্মাহত হন তিনি। তারপর থেকেই মন বিক্ষিপ্ত তার। সম্প্রতি আনুশকার মা হওয়ার খবর নিয়ে জোর গুঞ্জন উঠেছে। আর এতেই হঠাৎ করেই খেপেছেন এই অভিনেত্রী।

মা হওয়ার প্রশ্নে এবার বিরক্তির সঙ্গে আনুশকা বলেন, ‘বিয়ের পর সবার মনেই মহিলাদের অন্তঃসত্ত্বা হওয়া নিয়ে নানা প্রশ্ন শুনতে হয়। আর এ ধরনের কিছু না থাকলেও লোকে এগুলো শুনতে ভালোবাসে। কিন্তু কোনো কিছু না জেনে এভাবে ঢালাওভাবে যাচ্ছেতাই মন্তব্য যারা করছেন, তারা আসলে আমার শত্রু পক্ষ। এগুলো বিশ্রি ব্যাপার। মোটেই বাঞ্ছনীয় নয়। এর মাত্রা ছেড়ে গেলে তাদের বিরুদ্ধে আমি আদালতে যেতে বাধ্য হব। আমার সব থেকে বিরক্ত লাগে এসব প্রশ্ন যখন ভেঙে ভেঙে লোককে বোঝাতে হয়। একটু অন্য ধরনের পোশাক পরাও বিপদ! সবাই ভেবে বসে সেই অভিনেত্রী বোধহয় সন্তানসম্ভবা। রাবিশ কোথাকার।’

বিরক্তি শেষে সংবাদমাধ্যম কর্মীদের প্রতি বিনয়ের স্বরে আনুশকা বলেন, ‘তারকাদের একটু তাদের নিজেদের মতো করে বাঁচতে দিন। একজন অভিনেত্রী বিয়ে করলেই দিন কয়েক বাদে বাদেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে, যে সে কি মা হতে চলেছে? আর প্রেমের ক্ষেত্রে প্রশ্ন তোলে বিয়েটা কবে সারছে তারা! আর পাঁচটা মানুষের মতো বাঁচতে দিন আমাদেরও। কেউ অন্তঃসত্ত্বা কি না, হঠাৎ করে সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর কী প্রয়োজন?’

বিয়ের পর থেকেই বিরাট কোহলি এবং আনুশকা শর্মার সম্পর্কের রসায়ন বারবার এসেছে খবরের শিরোনামে। শুধু যে তারকা দম্পতি হওয়ার কারণে, তা নয়। নজর কেড়েছে তাদের একে-অপরের প্রতি ভালোবাসা, বিশ্বাস, সম্মান প্রদর্শনের একাধিক মুহূর্ত। উল্লেখ্য, ২০১৯-এর বিশ্বকাপের সময়ে ইংল্যান্ডে বিরাটের সফরসঙ্গী ছিলেন পত্নী আনুশকা শর্মা। খেলার মাঝে স্ত্রীর সঙ্গে ‘কোয়ালিটি টাইম’ও কাটিয়েছেন ভারতের ক্রিকেট অধিনায়ক। আর বিশ্বকাপ সফর শেষে ফিরে আসার পর থেকেই আনুশকার প্রেগন্যান্ট হওয়ার খবর মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে।

সম্প্রতি আনুশকার মুখোমুখি হয়েছিলেন ফিল্মফেয়ার ম্যাগাজিন। এতে বিয়ে, নিজের ক্যারিয়ার ও ভবিষ্যৎ নিয়ে কথা বলেন তিনি। র্দীঘদিনের প্রেমিক ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে মাত্র ২৯ বছর বয়সে বিয়ে করেছিলেন আনুশকা। প্রথম সারির একজন অভিনেত্রী হিসেবে এই বয়সে বিয়ে করা অনেকটা অবাক করার মতোই। উত্তরে আনুশকা বলেন, ‘একজন অভিনেত্রীকে তার ভক্তরা শুধু রুপালি পর্দায় দেখেই আনন্দ উপভোগ করে। তারা কাকে বিয়ে করল, কয় সন্তানের মা হলো-মোট কথা আমাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে তাদের কোনো মাথাব্যথা নেই। আর আমাদের এসব থেকে বেরিয়ে আসা প্রয়োজন। আমি ২৯ বছর বয়সে বিয়ে করেছি, যা একজন অভিনেত্রীর ক্ষেত্রে খুবই কম। কিন্তু আমি বিয়েটি করেছি আমার ভালোবাসার জন্য। এ ছাড়া বিয়ের ব্যাপারটাও প্রকৃতিরই নিয়ম।’

বিরাটের সঙ্গে আনুশকার সম্পর্ক কেমন জানতে চাইলে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘তার সততাকে আমি সবচেয়ে বেশি মূল্যায়ন করি। কেননা আমি নিজেও একজন সৎ মানুষ। আমি আনন্দিত, আমরা দুজনে সৎভাবে আমাদের জীবনটি উপভোগ করতে পারছি। এমন একজনকে জীবনসঙ্গী হিসেবে পেয়েছি যার মাঝে কোনো ছলনা নেই।’ 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads