• বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫
ads
৮৩ দিন পর বড়পুকুরিয়ায় কয়লা উত্তোলন শুরু

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি

সংগৃহীত ছবি

সারা দেশ

৮৩ দিন পর বড়পুকুরিয়ায় কয়লা উত্তোলন শুরু

  • সোহেল সানী, পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

দীর্ঘ ৮৩ দিন বন্ধ থাকার পর দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি থেকে পুনরায় কয়লা উত্তোলন শুরু হয়েছে। তবে কয়লা উত্তোলন শুরু হয়েছে পরীক্ষামূলকভাবে।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টা থেকে খনির ১৩১৪ নম্বর কোল ফেইজ থেকে কয়লা উত্তোলন শুরু হয়।

এব্যাপারে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. ফজলুর রহমান জানান, খনির চীনা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এক্সএমসি-সিএমসি, খনি কর্তৃপক্ষ ও খনি শ্রমিকদের নিরলস প্রচেষ্টায় শুক্রবার রাত হতে খনির ১৩১৪ নম্বর ফেইজ থেকে কয়লা উত্তোলন শুরু হয়। এই নতুন ফেইজে শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টা থেকে শনিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ৫২৯ মে.টন কয়লা উত্তোলন করা হয়। গত ১৫ জুন খনির উৎপাদনশীল ১২১০ নম্বর কোল ফেইজের উৎপাদনযোগ্য কয়লার মজুদ শেষ হয়ে যাওয়ায় ১৬ জুন থেকে খনির কয়লা উত্তোলন বন্ধ হয়ে যায়।

এদিকে, কয়লার অভাবে গত ২২ জুলাই বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ রয়েছে। এরফলে উত্তরাঞ্চলের ৮ জেলায় বিদ্যুতের লো-ভোল্টেজ ও লোডশেডিং সমস্যা দেখা দেয়। তবে কয়লা উত্তোলন শুরু হওয়ায় খনি কর্তৃপক্ষ, পিডিবি, পেট্রোবাংলার কর্মকর্তা ও সরকারের নীতি নির্দ্ধারক পর্যায়ে স্বস্তি ফিরে এসেছে বলে খনির একটি সূত্র জানায়।

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের উপদেষ্টা মো. আমজাদ হোসেন ও সভাপতি রবিউল ইসলাম বলেন, উত্তোলনকৃত মজুদ কয়লা শেষ হওয়ার পর দীর্ঘ ৪৭ দিন ধরে বড়পুকুরিয়া কয়লাভিত্তিক ৫২৫ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ রয়েছে। তারা আশা করেন পুনরায় বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হলে উত্তরাঞ্চলের ৮ জেলায় বিদ্যুতের লো-ভোল্টেজ ও লোডশেডিং সমস্যা কেটে যাবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads