• রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা

সৈকত হোসেন

ছবি : বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা

  • চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে প্রেমিকার সাথে অভিমান করে ফেসবুকে আগাম জানিয়ে আত্মহত্যা করেছে সৈকত হোসেন (১৯) নামের এক যুবক। সৈকত উপজেলার বাতিসা ইউনিয়নের আটগ্রামের মাহবুবুল হক ওরফে চৌধুরীর পুত্র।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে নামাজে জানাযা শেষে তাকে দাফন করা হয়। এরআগে সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা-চট্টগ্রাম রেললাইনের ফেনীর ফতেহপুর এলাকায় সৈকত চলমান ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করে। এতে তার দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন লাশটি উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সৈকত হোসেন দীর্ঘদিন একই গ্রামের এক মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক করার চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। কিন্তু মেয়েটি পরিবারের কারণে রাজি না হওয়ায় সৈকত অভিমান করে। এক পর্যায়ে সৈকত তার ব্যবহৃত ‘এসকে সৈকত’ নামের ফেসবুক আইডিতে স্ট্যাটাস দেয়।

গত ৯ সেপ্টেম্বর রোববার সন্ধ্যা ৭ টা ৭ মিনিটের সময় স্ট্যাটাসে যা লিখে সৈকত - ‘হ্যালো! প্রিয় ভাই ও বন্ধুরা পৃথিবীর আলোয় দেখা যাবে না আর আমাকে। আসছে আগামীকাল রোজ সোমবার ১০/০৯/২০১৮ আমি চলে যাচ্ছি চিরদিনের জন্য। যেখানে চলে যাওয়ার কথা ছিল। তাই সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। আমি যেন সুস্থ্যভাবে চলে যেতে পারি। সামনে যেন কোন বাধা না আসে’। ১৫ মিনিট পর ৭ টা ২২ মিনিটের সময় আবার আটটি ছবি দিয়ে স্ট্যাটাস দেয়-‘শেষ বারের মত আপলোড করলাম ছবি। আর কখনো দেখা যাবে না ফেসবুকে’। পরদিন ১০ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ৯ টা ৪৯ মিনিটের সময় একটি ছবি দিয়ে স্ট্যাটাস দেয়-‘বিদায় পৃথিবী আর কখনো দেখা যাবে না। আর মাত্র কিছক্ষুণ’। এর আট ঘন্টা পর সৈকত ফেনীর ফতেহপুর রেললাইনে চলন্ত ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করে। সৈকতের দেয়া স্ট্যাটাসের কমেন্টে তার মৃত্যুর পর ‘এমডি হাসান’ নামের একজন লিখেন ‘এটা তুই কি করলি একটা মেয়ের জন্য নিজের জীবনটা দিয়ে দিলি। একবারও কি তোর বাবা-মায়ের কথা চিন্তা করলি না। এখন তারা কি নিয়ে বাঁচবে। তারা এখন বেঁচে থেকেও মরা’।

এ ব্যাপারে ফেনী রেলওয়ে পুলিশের ইনচার্জ আরব আলী গতকাল মঙ্গলবার দৈনিক বাংলাদেশের খবরকে বলেন, ‘সোমবার সন্ধ্যা আনুমানিক ৬ টা ১০ মিনিটের সময় সৈকত নামের এক যুবক ট্রেনে কাটা পড়ে মারা যায়। লাশটি স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে’।

অপরদিকে চৌদ্দগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল্লাহ আল মাহফুজ বলেন, ‘ফেনীতে ট্রেনে কাটা পড়ে এক যুবক মৃত্যু সংবাদ শুনেছি’।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads