• রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
ছাদভাঙা হাসপাতাল ‘নিজ দায়িত্বে’ থাকার নোটিশ

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একটি ভবনের ছাদ হুটহাট ভেঙে পড়ছে

ছবি : বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

ছাদভাঙা হাসপাতাল ‘নিজ দায়িত্বে’ থাকার নোটিশ

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ১৭ নভেম্বর ২০১৮

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একটি ভবনের ছাদ হুটহাট ভেঙে পড়ছে। কিছু দিন আগে ছাদের পলেস্তারা খসে আহত হয়েছেন ওই হাসপাতালেরই এক সেবিকা। পরে ভবনটি পরিত্যক্তও ঘোষণা করা হয়। কিন্তু সেই ভবনেই ঝুঁকি নিয়ে এখনো চলছে চিকিৎসা কার্যক্রম। ‘দায় এড়াতে’ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সেখানে ‘নিজ দায়িত্বে’ থাকার একটি নোটিশ টানিয়ে দিয়েছে।

খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, হাসপাতালটির দ্বিতীয় তলা এই ঝুঁকিতে পড়েছে। ওয়ার্ডের প্রবেশ মুখেই একটি নোটিশ টানিয়ে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তাতে বলা হয়েছে, ‘এই ওয়ার্ডের ছাদ ভেঙে পড়তেছে, এখানে থাকলে নিজ দায়িত্বে থাকবেন (কর্তৃপক্ষ)’। তবে কম খরচে ‘ভালো’ সেবার আশায় রোগীরা স্বেচ্ছায়ই সেখানে ভর্তি হচ্ছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রেমানন্দ মণ্ডল বলেন, প্রকৌশল বিভাগ অনেক আগেই ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছে। আমরা এখানে রোগী রাখতে চাই না। রোগীরা জোর করে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেন। তাই আমরা ওই সতর্কতাসূচক নোটিশ টানিয়ে দিয়েছি।

তিনি জানান, পুরাতন ভবনটি ভেঙে নতুন আধুনিক ভবন নির্মাণের প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। মাস তিনেকের মধ্যে কাজ শুরু হওয়ার কথা।

ঝুঁকির মধ্যেও কেন ভর্তি হচ্ছেন? এমন এক প্রশ্নের জবাবে সেখানে ভর্তি উপজেলার টুপুরিয়া গ্রামের রাজা আলী মিয়া (৫৫) বলেন, দুর্ঘটনায় আহত হয়েছি। বাইরে চিকিৎসা করানোর সামর্থ্য নেই। তাই মৃত্যুকে আলিঙ্গন করে এখান থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার আশা করছি। রাজা মিয়ার মতো একই কথা বলেন আরো অনেকে। পংকজ অধিকারী (৩৫) নামের এক রোগী বলেন, এই হাসপাতালে ভালো চিকিৎসা পাওয়া যায়। এখানে সার্বক্ষণিক চিকিৎসক ও নার্স থাকেন। এখানে চিকিৎসা খরচও কম।

এ বিষয়ে জ্যেষ্ঠ স্টাফ নার্স রুনু বৈদ্য বলেন, কর্তব্যরত অবস্থায় ছাদের পলেস্তারা খসে পায়ে পড়ে আহত হয়েছি। ঝুঁকির মধ্যে দায়িত্ব পালন করে যেতে হচ্ছে। কখনো কখনো চিকিৎসক এবং রোগীও আহত হচ্ছেন। বিডিনিউজ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads