• মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮

‘হামাগরের আদালত, গ্রাম আদালত’

গ্রাম আদালতে ন্যায্য বিচারে খুশি আবুল হোসেন

ছবি : বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

‘হামাগরের আদালত, গ্রাম আদালত’

  • পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৮ নভেম্বর ২০১৮

নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার পাটিচরা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মোবারকপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা আবুল হোসেন। তার সাথে গ্রাম আদালতের সেবা নিয়ে আলোচনাকালে তার মনের কথা ব্যক্ত করে বলেন ‘হামাগরের আদালত গ্রাম আদালত’। আবুল হোসেন প্রতিবন্ধী হলেও পেশায় একজন কৃষক। মাসিক আয় ৪০০০-৫০০০ টাকা মাত্র। এখন আসল কথায় আসা যাক। একই ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামের আব্দুর রউফ তার আপন ভায়রা। সে পেশায় একজন অটোরিক্সা চালক। ২০১৫ সালে আব্দুর রউফ’র স্ত্রী মরণব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়। স্ত্রীর চিকিৎসার খরচ চালাতে গিয়ে রউফ নিঃস্ব হয়ে যায়। হঠাৎ একদিন রউফ, আবুল হোসেনের বসায় গিয়ে অটোরিক্সা কেনার জন্য ত্রিশ হাজার টাকা ধার চাইলে তার মুখের দিকে তাকিয়ে আবুল হোসেন তাকে ফেরাতে পারনি। কিছুদিন পর রউফ এর স্ত্রীর শারিরিক অবস্থার আরো অবনতি হলে তাকে চিকিৎসার জন্য ধাপে ধাপে আরো ৩৩ হাজার টাকা সাহায্য করে আবুল হোসেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তার স্ত্রীকে বাঁচাতে পারেননি। গত ৮ জুলাই ২০১৭ইং তারিখ রউফ এর স্ত্রী মারা যায়। তারই কিছুদিন পর রউফ এর কাছে ধারের ৩০ হাজার টাকা আবুল হোসেন চাইতে গেলে দিবো, দিচ্ছি বলে সময় নষ্ট করে। শেষ পর্যন্ত ১৫ মার্চ ২০১৮ ইং তারিখ আবুল হোসেন ধারের টাকা চাইতে গেলে, রউফ কোন প্রকার টাকা ধার নেয়নি বলে এবং তাদের মধ্যে বিরোধ শুরু হয়। গ্রামের লোকজনকে এ বিষয়ে বলে কোনো ভালো ফল না পেয়ে আবুল হোসন ৩ এপ্রিল ১৮ তারিখ পাটিচরা ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে একটি মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং ৩১/১৮। আবুল হোসেন মনের ক্ষোভে ধারের ৩০হাজার টাকার সাথে সাহায্যের ৩৩ হাজার টাকাসহ মোট ৬৩ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে পাটিচরা ইউনিয়ন পরিষদে একটি আবেদন পত্র দাখিল করে। ইউপি চেয়ারম্যান রায়হানুল আলম আবেদন পত্রটি যাচাই-বাছাই শেষে উভয় পক্ষ সমন এর মাধ্যমে ইউপি পরিষদে উপস্থিত হওয়ার নির্দেশ দেন। ধার্য্য দিনে উভয় পক্ষ উপস্থিত হলে চেয়ারম্যানের সামনেই রউফ ধারের ত্রিশ হাজার টাকা নেয়া অস্বীকার করে। ফলে উভয় পক্ষের ২ জন করে ৪ জন এবং ইউপি চেয়ারম্যানসহ মোট ৫ জন সদস্য মিলে গ্রাম আদালত গঠিত হয়। গ্রাম আদালত শুনানী শেষে ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে 'আব্দুর রউফ' আবুল হোসেনকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ত্রিশ হাজার টাকা প্রদান করবে মর্মে আদালত সিদ্ধান্ত ঘোষনা করে।

ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে আবুল হোসেন ক্ষতিপূরণের ত্রিশ হাজার টাকা পেয়ে একটি গরু ক্রয় করে। আবুল হোসেন বলেন, তার মত পত্নীতলা উপজেলার শত শত অসহায় মানুষ আজ গ্রাম আদালতের মাধ্যমে ন্যায় বিচার পাচ্ছে। এ বিষয়ে গ্রাম আদালত প্রকল্পের পত্নীতলা উপজেলা সমন্বয়কারী সেলিম উদ্দীন(ইএসডিও) বলেন, ইউরোপীয়ন ইউনিয়ন ও ইউএনডিপির অর্থায়নে স্থানীয় সরকার বিভাগের বাস্তবায়নে বাংলাদেশের ২৭টি জেলায় ১২৮ টি উপজেলায় ১০৮০ টি ইউনিয়নে সরকার গ্রাম আদালত সক্রিয়করণের (২য় পর্যায়) কাজ হাতে নিয়েছেন। রাজশাহী বিভাগের নওগাঁ, পাবনা ও সিরাজগঞ্জে এই প্রকল্প চলমান রয়েছে। এ থেকে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষরা আজ ন্যায় বিচার পাচ্ছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads