• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
ফুলপুরে ঘূর্ণিঝড়ে গাছচাপায় একজনের মৃত্যু

ফুলপুরে ঘূর্ণিঝড়ে তাণ্ডবে গাছের নিচে চাপা পড়া দোকান

ছবি : বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

ফুলপুরে ঘূর্ণিঝড়ে গাছচাপায় একজনের মৃত্যু

  • ফুলপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২১ মে ২০১৯

ময়মনসিংহের ফুলপুরে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে আব্দুল হালিম (৬০) নামে একজনের প্রাণহানি হয়েছে।

এ সময় আরও ৩ জন আহত ও শত শত ঘরবাড়ি, দোকানপাট, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, গাছগাছালি ও বোরো ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হয়।

জানা যায়, ফুলপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে সোমবার রাতে হঠাৎ ঘূর্ণি ঝড়ে আঘাত হানে। ঘণ্টা ব্যাপী বয়ে যাওয়া ওই ঘূর্ণিঝড়টি উপজেলার ভাইটকান্দি, ছনধরা, সিংহেশ্বর, বালিয়া, রূপসী, পয়ারী, রহিমগঞ্জ ও ফুলপুর পৌরসভাসহ বেশ কয়েকটি ইউনিয়নে হানা দিয়ে শত শত ঘরবাড়ি, মার্কেট, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, গাছগাছালি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান লণ্ডভণ্ড করে দেয়। এতে উপজেলার বড়ইকান্দি ঈদগাহ মাঠ, খাদিজা (রাঃ) মহিলা মাদরাসা, কাড়াহা বায়তুল আমান জামে মসজিদ, ইমাদপুর আব্দুল মজিদ মার্কেট, বালিয়া মোড়ের একটি মার্কেট ও বড়পুটিয়া আঃ জলিলের গরুর খামারের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। খাদিজা (রাঃ) মহিলা মাদরাসার টিনের চাল উড়িয়ে নিলে প্রায় ২০০ ছাত্রীর কিতাবাদি ও কাপড়চোপড় ভিঁজে যায়। মানবেতরভাবে তখন তারা রাত কাটায়। বড়পুটিয়া আঃ জলিলের গরুর খামারে গাছ পরে ১টি বড় গরু মারা যায় এবং ৫ টি গরু আহত হয়। বিহারাঙ্গা বাজারে বিদ্যুতের পিলার ভেঙে পড়ে ও দোকান ঘরের চাল উড়িয়ে নেয়।

প্রবল ঝড় তুফানের সময় ভাইটকান্দি সখল্যা মোড়ে ঝড় থেকে রক্ষার জন্য বিল্লাল মার্কেটের দু'ঘরের ফাঁকে গিয়ে আশ্রয় নিলে রোডস এন্ড হাইওয়ের একটি বড় গাছ পড়ে দেয়াল চাপায় মারাদেওড়া গ্রামের আব্দুল হালিম (৬০) ঘটনাস্থলে নিহত হন ও মকবুল হোসেনসহ ৩ জন আহত হয়েছেন। উপজেলার কালিবাড়ি হতে রহিমগঞ্জ সড়কে ও শেরপুর মহাসড়কে গাছ পড়ে যান চলাচল দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে গাছ কেটে রাস্তায় যান চলাচল স্বাভাবিক করেন। সোমবার রাত ৮ টা থেকে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত ফুলপুরে বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ ছিল।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) তৃপ্তি কণা মন্ডল এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শনকালে ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতার আশ্বাস দেন ও নিহত আব্দুল হালিমের দাফনের জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা সাহায্য দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads