• সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৫
ads
গোদাগাড়ীতে কৃষকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ইউএন‘র ধান সংগ্রহ

গোদাগাড়ীতে কৃষকের বাড়ী বাড়ী ধান ক্রয় করছে উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার

ছবি : বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

গোদাগাড়ীতে কৃষকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ইউএন‘র ধান সংগ্রহ

  • প্রকাশিত ২৩ মে ২০১৯

গোদাগাড়ী (রাজশাহী) প্রতিনিধি

সরকারের বেঁধে দেওয়া দরে রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে প্রান্তিক কৃষকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ধান সগ্রহ করছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শিমুল আকতার ও উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম। এতে শতশত প্রকৃত কৃষক লোকসানের হাত থেকে রক্ষা পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টা ৩০ মিনিট এর সময় উপজেলার পিরিজপুর এলাকার প্রান্তিক কৃষকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ধান ক্রয় করেন তিনি। পিরিজপুর গ্রামের কৃষক রবিউল ইসলামের বাড়ী থেকে ১ টন, আকতার রহমানের ১ টন, ওসমানের ৫ টন, সাদিকুলের ১ টন, মোজাম্মেল হক ঝাটুর ১টন ধান পরীক্ষা করে ২৬ টাকা কেজি দরে ধান সংগ্রহ করেন। কৃষক রবিউল বলেন, ১০৪০ টাকা মন দরে কৃষকের কাছ থেকে ধান কেনাতে কৃষকের লাভ হবে।

উপজেলা খাদ্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, এবারে গোদাগাড়ী উপজেলার জন্য ৪১০ মেট্রিক টন ধান ও ৭৫৬ মেট্রিক টন গম ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। অপরদিকে মিল মালিকদের কাছ থেকে চাল সংগ্রহ করা হবে ৩৯৮৪ মেট্রিক টন। ধানের মূল্য ধরা হয়েছে ২৬ টাকা কেজি, গম ২৮ টাকা ও চালের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৬ টাকা প্রতি কেজিতে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিমুল আকতার বলেন, কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহের জন্য গণপ্রচারণা চালানো হচ্ছে। প্রান্তিক কৃষকরা যাতে মধ্যসত্বভোগীদের খপ্পরে না পড়ে এবং সরকারের ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত না হয় সে জন্য সরাসরি প্রান্তিক কৃষকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ধান সংগ্রহ অভিযান চালানো হচ্ছে। এ ছাড়া কৃষকদের সরাসরি ধান খাদ্য গুদামে পৌঁছানোর জন্য সকল প্রকার সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বিকাশ চন্দ্র, ৬ নং মাটিকাটা ইউপি চেয়ারম্যান আলী আযম তৌহিদ, ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম, নয়নসহ এলাকার সাধারণ কৃষকরা।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads