• সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬
ছেলেধরা গুজবে ভূঞাপুরের ২ জনকে গণপিটুনি

ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনির শিকার ভ্যান চালক মিনু মিয়া (৩০) ও রুবেল মিয়া (৪০)

ছবি : বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

ছেলেধরা গুজবে ভূঞাপুরের ২ জনকে গণপিটুনি

  • প্রকাশিত ২২ জুলাই ২০১৯

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

আব্দুল লতিফ তালুকদার,  টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরের ২ জনকে পৃথক দুটি স্থানে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনির শিকার হয়েছে। 

এরা হলেন, উপজেলার পৌর এলাকার টেপিবাড়ি গ্রামের কোরবান আলীর ছেলে ভ্যান চালক মিনু মিয়া (৩০) ও গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কষ্টাপাড়া গ্রামের মৃত গফুর মিয়ার ছেলে রুবেল মিয়া (৪০)

গতকাল রবিবার( ২১ জুলাই) ভূঞাপুর থেকে মাছ ধরার উদ্দেশ্য জাল কিনতে যান কালিহাতীর সয়া নামক হাটে। এমতাবস্থায় হাটের কিছু কিশোর তাকে ছেলেধরা সন্দেহ করে এলোপাথারি লাঠিশোটা দিয়ে আঘাত করতে করতে বিবস্ত্র করে ফেলে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেলে রেফার্ড করা হয়।

এদিকে একই দিনে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কষ্টাপাড়া গ্রামের মৃত গফুর মিয়ার ছেলে জামালপুরের সরিষাবাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে জনতার হাতে গণপিটুনির শিকার হয়।

স্থানীয়ররা জানায় সে তারাকান্দি যমুনা সারকারখানার কান্দারপাড়া বাজার জামে মসজিদ এলাকায় এলোমেলো ভাবে ঘোরাঘুরি করছিল এর পর দুপুর দের টার দিকে স্থানীয় চা দোকানদার গোলাপ আলী দোকানে চা পান করে মসজিদে যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন ছেলে ধরা সন্দেহে তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে গণপিটুনি দেয়। পরে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান, সাংবাদিক শরিফুদ্দীন ও স্থানীয় সাংবাদিক বাদলসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিরা তারাকান্দি থানা পুলিশকে খবর দিলে তাকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ ব্যাপারে আহত মিনু মিয়ার পক্ষ থেকে সোমবার (২২ জুলাই) উপজেলার পৌর এলাকার টেপিবাড়ী মোড়ে দোষীদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করা হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads