• রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
গলাচিপায় ভিপি নুরের ওপর হামলা

প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ভিপি নুরকে এম্বুললেন্সযোগে বাড়ি নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

ছবি : বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

গলাচিপায় ভিপি নুরের ওপর হামলা

  • গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৪ আগস্ট ২০১৯

গলাচিপা উপজেলার উলানিয়া বন্দরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিপি নুরুল হক নুরের মটর সাইকেল বহরে হামলা হয়েছে। দুষ্কৃতকারীদের এ হামলায় নুরসহ ৫ থেকে ৭ জন আহত হয়েছে।

আজ বুধবার মটর সাইকেল বহর নিয়ে দশমিনা উপজেলায় বোনের বাড়ি যাওয়ার সময় পথে মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মো. হাফিজুর রহমান ও গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আখতার মোর্শেদ (ওসি) নুরকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

বিভিন্ন নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, বুধবার নুরের গ্রামের বাড়ি উপজেলার চরবিশ্বাস থেকে লঞ্চযোগে বদনাতলী ঘাটে নামে। তিনি মটর সাইকেল বহর নিয়ে দশমিনা উপজেলায় বোনের বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। উলানিয়া পৌছলে বন্দরে মটর সাইকেল কতিপয় লোকজন লোহার পাইপ নিয়ে তার ও সফরসঙ্গীদের ওপর হামলা চালায়। ঘটনাস্থলের পাশে থাকা ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যরা আক্রমনকারীদের নিবৃত করে। নুরকে একটি ঘরে আটকে রাখা হয়। এ সংবাদ পেয়ে এএসপি সার্কেল মো. হাফিজুর রহমান ও গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আখতার মোর্শেদ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছান। তারা নুরকে উদ্ধার করে গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, হামলার নুরের শরীরের কয়েকটি স্থানে হালকা আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এ ব্যাপরে নুরের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তার সফরসঙ্গী সোহরাওয়ার্দি কলেজের বন্ধু রুবেল জানান, উলানিয়া বন্দরে পৌছালে আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালানো হয়। এ হামলার ঘটনায় ছাত্রলীগ, যুবলীগের নেতাকর্মীদের দায়ী করেন।

এদিকে গলাচিপা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক শরীফ আহমেদ আসিফ জানান, আমরা ছালীগের নেতাকর্মীরা পুলিশের সাথে সহযোগীতা করে তাকে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করি।

গলাচিপা থানার ভারপাপ্ত কর্মকর্তা আখতার মোর্শেদ জানান, নুরের শরীরে সামান্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads