• রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
লৌহজংয়ে ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট ও সাংবাদিকসহ আটক ৭

ছবি: বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

লৌহজংয়ে ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট ও সাংবাদিকসহ আটক ৭

  • লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব ও সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে ৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার এ ঘটনা ঘটে।

উপজেলার কনকসারের নাগেরহাট বাজারে মিষ্টির দোকানে ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব ও সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাদাবী করার সময় এক দোকানী লৌহজং থানায় খবর দিলে পুলিশ একজন ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট, একজন ভূয়া র‌্যাব, চারজন সাংবাদিকসহ একজন ড্রাইভারকে আটক করেন।

লৌহজং থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মো. আলমগীর হোসাইন জানান, উপজেলার নাগের হাটবাজারের গিরীধারী মিষ্টান্ন ভান্ডার, আদি সুবল ঘোষ মিষ্টান্ন ভান্ডার ও সুবল ঘোষ মিষ্টান্ন ভান্ডারের আসে এই ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব ও সাংবাদিকের দল। তখন এসব দোকানের ভুল-ক্রটি ধরতে থাকে এবং তারা বিভিন্ন অনিয়মের চিত্র দেখিয়ে মোবাইল কোর্ট করবে বলে জানান। দোকানদারদের বলেন, এসব অনিয়ম এবং অবৈধ ব্যবসার জন্য অনেক টাকা জরিমানা করা হবে। এমনকি কারাদণ্ডও দেওয়া হবে। এসব কথা বলে ওই তিনটি দোকানের মালিকদের কাছে দেড় লাখ টাকার চাঁদাদাবী করে বসে তারা। ওই সময়ে ভুক্তভোগী দোকানদার লৌহজং থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে খটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে তাদের আটক করে।

তিনি জানান, তাদের বিরুদ্ধে গতরাতে নাগেরহাট বাজারের মিষ্টির দোকানদার বীরেন মল্লিক বাদী হয়ে একটি চাঁদাবাজী মামলা দায়ের করেছে। আটককৃতদের থেকে একটি ভিডিও ক্যামেরা কয়েকটি মোবাইল ফোন ও দৈনিক চৌকস পত্রিকার ৪টি আইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে। সে সাথে তাদের ব্যবহারকৃত মাইক্রোবাসটি জব্দ করা হয়েছে।

আটকৃতদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তারা পেশায় কেউ সিএনজি চালক, কেউ ভিডিও দোকানের কর্মচারী, আবার কেউবা কাপড়ের দোকানে চাকুরি করেভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব ও সাংবাদিকের। তারা সাংবাদিকদের কাছে স্বীকার করে বলেন, দীর্ঘদীন যাবত মানুষের সাথে ভিন্ন ভিন্ন পরিচয়ে চাঁদাবাজী করে আসছিলো। লৌহজংয়ে এর আগে আরও একবার তারা বিভিন্ন দোকান থেকে টাকা নিয়ে গেছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads