• শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬
ads
কালিয়াকৈরে ফুটপাথ দখল, ভোগান্তিতে পথচারী

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

সারা দেশ

কালিয়াকৈরে ফুটপাথ দখল, ভোগান্তিতে পথচারী

  • কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ফুটপাথ  দখল করে চলছে রমরমা বাণিজ্য। শুধু হকার নয় , বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের দখলে রয়েছে কালিয়াকৈর বাজারের প্রধান সড়ক ও সড়কের পাশের ফুটপাথ। ফলে রাস্তায় চলতে গিয়ে চরম বিড়ম্বনায় পড়ছেন পথচারীরা। ফুটপাথ দখলমুক্ত করতে আইনের কঠোর  প্রয়োগ দাবী করেছেন স্থানীয়রা ।

উপজেলার কালিয়াকৈর বাসস্টেশন এলাকা ও কালিয়াকৈর বাজার ঘুরে দেখা যায়, এক শ্রেণির ব্যবসায়ী ক্ষমতাসীন দলের নাম ভাঙ্গিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই ফুটপাথ দখল করে চালিয়ে যাচ্ছেন ব্যবসা। এমনিতেই গাড়ির চাপ তার ওপর ফুটপাথ দখল। ফুটপাথ দখলমুক্ত করতে উপজেলা প্রশাসনের কাছে বারবার আবেদন করলেও আশ্বাস ছাড়া কোনো ফল পাওয়া যায় ন্ইা। কালিয়াকৈর পৌরসভার পক্ষ থেকেও  ফুটপাত দখলমুক্ত করতে আজ পর্যন্ত কোনো অভিযান পরিচালনা করা হয় নাই বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের উপজেলার কালিয়াকৈর বাজার মোড়ের চিত্র আরো ভয়াবহ। এখানে  মহাসড়কের দুই পাশে ফুটপাথ ও গাড়ি পার্কিংয়ের যায়গা দখল করে  বিভিন্ন ফলের দোকান,কাচাঁবাজার ও কয়েকটি আখমাড়াই মেশিনসহ  বিভিন্ন অবৈধ  ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে।  ফলে একদিকে পথচারীদের চলাচলে অসুবিধা হচ্ছে । অপরদিকে গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গা জবর দখল হওয়ায় মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। মহাসড়কে ঘটছে  দুর্ঘটনাসহ আইনশৃঙ্খলা বিঘ্নকারী নানা ঘটনা।

বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা কালিয়াকৈর শাখার সভাপতি মো. শাহজাহান মিয়া বলেন, ফুটপাত হচ্ছে জনগণের চলার জন্য। কিন্তু ফুটপাতের সুবিধা পথচারীরা পাচ্ছে না। দুঃখজনক হলেও সত্য ফুটপাত মেরামত করা হয় না। তদারকিও করা হয় না । ফলে নগরবাসী প্রচুর ভোগান্তিতে পড়ছেন।

কালিয়াকৈর পৌরসভার প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. জাহিদুল আলম তালুকদার বলেন, মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ফুটপাথ থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য গাজীপুর  জেলা প্রশাসকের কাছে  আবেদন করা হয়েছে। খুব দ্রুত ফুটপাত ও মহাসড়কের গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গা থেকে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করা হবে।

কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী হাফিজ উদ্দিন বলেন, আইন অমান্য করে যারা  ফুটপাথ দখল করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads