• শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬
ads

সারা দেশ

বেড়েছে উন্নতি, বেড়েছে দুর্নীতি : রাষ্ট্রপতি

  • কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১০ অক্টোবর ২০১৯

চলমান দুর্নীতিবিরোধী অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, দেশে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাড়ার পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দুর্নীতি। তাই এখনই দুর্নীতির লাগাম টেনে ধরতে হবে।

গতকাল বুধবার বিকালে কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা সরকারি ডিগ্রি কলেজ মাঠে নাগরিক কমিটি আয়োজিত এক সুধী সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, দুর্নীতি যে-ই করুক, তিনি যে দলেরই হোক না কেন, কোনো অবস্থায়ই তাকে ছাড় দেওয়া হবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজের দল থেকে অভিযান শুরু করেছেন। ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগসহ যাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া যাবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, সরকার সমাজ থেকে দুর্নীতি নির্মূলে একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ নিয়েছে। আমি বিশ্বাস করি, দুর্নীতি বন্ধ করতে পারলে দেশ আরো এগিয়ে যাবে।

রাষ্ট্রপতি আরো বলেন, দেশের রাজনীতি আজ আর আগের মতো নেই। এখন রাজনীতিবিদরা কেবল নির্বাচনের সময় ভোটারদের কাছে যান। তাদের খোঁজখবর নেন। এটা ঠিক নয়। রাজনীতি করলে নেতাদের সারা বছর জনগণের কাছে যেতে হবে। তাদের সুখে-দুঃখে পাশে থাকতে হবে।

এ সময় তাড়াইলের মানুষের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে আবদুল হামিদ বলেন, এ এলাকার মানুষ ১৯৭০ সালে আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছিল। তাদের কথা কখনো ভুলতে পারব না। তবে রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর নিরাপত্তার বেড়াজালে সব সময় অনেকের খোঁজখবর নিতে পারি না।

কিশোরগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নুর সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন কিশোরগঞ্জ-৫ আসনের এমপি আফজাল হোসেন, রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, প্রেস সচিব জয়নাল আবেদিন, জেলা পরিষদের চেয়ারমান মো. জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম এ আফজল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ আজিজুল হক, তাড়াইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুল হক ভূঁইয়া, তাড়াইল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়া শাহীন, শোলাকিয়া ঈদগাহের ইমাম মাওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ, অ্যাডভোকেট হামিদুল আলম চৌধুরী নিউটনসহ এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তি।

এর আগে তাড়াইল উপজেলা সদরে ‘স্বাধীনতা ৭১’ ভাস্কর্য উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads