• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
গোপালগঞ্জে ২০০ হিন্দু পরিবারকে উচ্ছেদের চক্রান্তের প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

সারা দেশ

গোপালগঞ্জে ২০০ হিন্দু পরিবারকে উচ্ছেদের চক্রান্তের প্রতিবাদে মানববন্ধন

  • গোপালগঞ্জ সদর প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৬ নভেম্বর ২০১৯

গোপালগঞ্জে ভুয়া সোলেনামা দ্বারা ২০০ হিন্দু পরিবারকে উচ্ছেদের চক্রান্তের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে  এলাকাবাসী।

আজ বুধবার দুপুর ১২টায় প্রেসক্লাবের সামনে সদর উপজেলার কুয়াডাঙ্গা ও কাড়ারগাতী এলাকাবাসী এ মানববন্ধন করে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার কুয়াডাঙ্গা ও কাড়ারগাতী এলাকা একটি হিন্দু অধ্যুষিত এলাকা।  শত শত বছর ধরে তারা পূর্বপুরুষ থেকে ওই এলাকায় বসবাস করে আসছে।  স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর ওই এলাকার চিহ্নিত ভূমি দস্যূ সাবু চৌধূরী গং ও সফিউল ইসলাম মোল্লা  ১২২২/১৯৪৮ নং খাজনা মামলা ও ১৯৬২ সালের জাল সোলেনামার ভয় দেখিয়ে কুয়াডাঙ্গা ও কাড়ারগাতী গ্রামের ২৩টি হিন্দু পরিবারের ভূমি ৭ একর ৭৭ শতাংশ সম্পত্তি পরোক্ষভাবে ২০০টি হিন্দু পরিবারের ভূমি ও বসতবাড়ী জোর করে প্রভাবশালীদের কাছে বিক্রি করেছে। পরে তারা সাইনবোর্ড টানিয়ে, ঘরবাড়ী নির্মাণ করে ও সালিশী বসিয়ে বিরাট অংকের টাকা  চাঁদা দাবী করছে।  চাঁদা দিতে না পারলে রাতের অন্ধকারে ওই চক্রটি স্থানীয় দালালদের সঙ্গে নিয়ে দিনের পর দিন তাদের উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাচ্ছে। এমনকি তাদেরকে ভারতে পাঠিয়ে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছে। 

এর আগে, গ্রামবাসীর পক্ষে থেকে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ জানানো হয়। 

 

মানববন্ধনে এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, দূর্গপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আকবর আলী ফরাজী, জেলা যুবলীগের সভাপতি জিএম সাহাবুদ্দিন আজম, পৌর কাউন্সিলর আলিমুজ্জামান বিটু, প্রমূখ। 

বক্তারা ভূমিদস্যু সাবু চৌধুরী গংদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads