• শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
'এক যুগে দেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে সাড়ে সাত বছর'

ফাইল ছবি

সারা দেশ

'এক যুগে দেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে সাড়ে সাত বছর'

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১৫ নভেম্বর ২০১৯

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা এমপি বলেছেন, বিগত বার বছরে বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে সাড়ে সাত বছর। অপর দিকে সারা বিশ্বে গড়ে বেড়েছে সাড়ে পাচ বছর।

আজ মুন্সিগঞ্জ জেলার মিরকাদিম পৌরসভা প্রাঙ্গণে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর আয়োজিত কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মা সহায়তা কর্মসূচি আওতায় উপকারভোগী মা ও শিশুদের জন্য হেলথ ক্যাম্প উদ্বোধন ও চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বদরুন নেসা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান ও মিরকাদিম পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহীন বক্তব্য দেন।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য খাতে সরকারের সুব্যবস্থা ও দক্ষ পরিচালনার ফলে মা ও শিশুর স্বাস্থ্য উন্নয়ন এবং মা ও শিশু মৃত্যু রোধে সরকারের কার্যক্রম সারা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে। সরকার নিম্ন আয়ের কর্মজীবী মা ও শিশুর স্বাস্থ্য- পুষ্টিমাণ বৃদ্ধি করে তাদের আর্থসামাজিক ভাবে স্বাবলম্বী করতে কাজ করছে।

মা ও শিশুর পুষ্টি উন্নয়নে সরকারের বিভিন্ন কার্যক্রমের কথা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, যে শিশু ভূমিষ্ঠ হয়নি সে শিশুর পুষ্টি নিশ্চিত করতে দেশব্যাপী মা ও শিশু সহায়তা কর্মসূচি চালু করা হয়েছে। প্রায় চৌদ্দ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে ও ত্রিশ প্রকার ওষুধ বিনামূল্যে প্রদান করা হচ্ছে।
প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা অনুষ্ঠানে মিরকাদিম পৌরসভার এক হাজার কর্মজীবী মায়েদের মধ্যে ল্যাকটেটিং মা ভাতার চেক এবং মা ও শিশুর স্বাস্থ্য সেবা ও স্বাস্থ্য পরিচর্যা সামগ্রী বিতরণ করেন।

মুন্সীগঞ্জ জেলায় মোট দুই হাজার দুইশ’ মা’কে ল্যাকটেটিং ভাতা প্রদান করা হচ্ছে। কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মা সহায়তা কর্মসূচি আওতায় সরকার সারাদেশে ২ লাখ ৭৫ হাজার মা’কে ৮ শ’ টাকা করে তিন বছর মেয়াদে এ ভাতা প্রদান করছে। একই সাথে এসকল মায়েদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা এর আগে মুন্সীগঞ্জ শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে এপেক্স ক্লাব বাংলাদেশের জেলা গভর্ণর- ১ কনভেনশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। একই সফরে প্রতিমন্ত্রী মুন্সীগঞ্জের কন্দাল ফসল গবেষণা উপকেন্দ্র আয়োজিত আলু ও মিষ্টি আলু থেকে প্রক্রিয়াজাত খাদ্য মেলার উদ্বোধন করেন।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads