• বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
কুলাউড়ায় গৃহবধু ও যুবকের মৃত্যু

সংগৃহীত ছবি

সারা দেশ

কুলাউড়ায় গৃহবধু ও যুবকের মৃত্যু

  • কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১২ মার্চ ২০২০

কুলাউড়া উপজেলার টিলাগাঁও ইউনিয়নে দুদিনের ব্যবধানে এক গৃহবধু ও অপর এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল বুধবার রাতে বিয়ের অনুষ্ঠানে কমিউনিটি সেন্টারের ছাঁদ থেকে পড়ে পুলক দে (২৩) এবং নির্যাতনের শিকার নাছিমা বেগম (২৩) নামক গৃহবধু চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০মার্চ মঙ্গলবার রাতে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেন। গৃহবধুর মৃত্যুর ঘটনায় শশুড়-শাশুড়ীসহ ৪জনকে আটক করেছে পুলিশ।

টিলাগাঁও ইউনিয়নের মেম্বার চান্দ আলী জানান, তাজপুর গ্রামের প্রনব দের পুত্র পুলক দে (২৩) বুধবার রাতে বিয়ের নিমন্ত্রণ খেতে স্থানীয় কমিউনিটি সেন্টারে যান। সেখানে রাত আনুমানিক ১১টায় কমিউনিটি সেন্টারের দোতালার ছাদ থেকে কিছু পড়ার শব্দ শুনে বিয়ের অনুষ্টানের লোকজন এগিয়ে আসেন। এসময় মুমূর্ষু অবস্থায় পুলক দেকে উদ্ধার করে কুলাউড়া হাসপাতালে নেয়ার সময় মাঝপথে তার মৃত্যু হয়।

কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী জানান, রাতে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। বৃহস্পতিবার লাশের ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণ করে। পুলক দে একজন মৃগী রোগী ছিলেন।

এদিকে থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ ও নিহত গৃহবধুর পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, টিলাগাঁও ইউনিয়নের ডরিতাজপুর গ্রামের মনসুর আলীর বোন নাছিমা বেগমের সাথে একই ইউনিয়নের পাল্লাকান্দি গ্রামের তৈয়ব আলীর ছেলে জুয়েল মিয়ার বিয়ে হয় ৫-৬ বছর আগে। বিয়ের পর থেকে শশুড় বাড়ির লোকজনের যৌতুকের বায়না ছিলো প্রায়ই।

১০মার্চ মঙ্গলবার নির্যাতনে গুরুতর আহত অবস্থায় মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় নাছিমা বেগমকে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে গৃহবধু নাছিমা বেগমের মৃত্যু হয়।

এদিকে এঘটনায় রাতেই নাছিমা বেগমের বড়ভাই মনসুর আলী ৬জনকে আসামী করে কুলাউড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর ভোররাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার অন্যতম আসামী ও নিহত গৃহবধুর শশুড় তৈয়ব আলী, দেবর আসুক মিয়া, শাশুড়ী আমেনা বেগম ও খালা শাশুড়ী ছামিনা বেগমকে আটক করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই নিরঞ্জন জানান, ময়নাতদন্ত শেষে গৃহবধুর লাশ তার বাবার বাড়ির লোকজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads