• রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর বাসিন্দাদের খাদ্য সহায়তা প্রদান

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

সারা দেশ

দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর বাসিন্দাদের খাদ্য সহায়তা প্রদান

  • গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২৮ মার্চ ২০২০

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে গত ২০ মার্চ দেশের সর্ববৃহৎ গোয়ালন্দ উপজেলা দৌলতদিয়া যৌনপল্লী বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। এরপর থেকে পল্লীর দেড় সহস্রাধিক বাসিন্দা চরম মানবেত দিন কাটাচ্ছে।

এ প্রেক্ষিতে শনিবার দুপুরে প্রশাসন, বেসরকারী উন্নয়ন সংগঠন মুক্তি মহিলা সমিতি (এমএমএস) ও স্থানীয় সংসদ সদস্যের মেয়ের পক্ষ থেকে দৌলতদিয়া যৌনপল্লী বাসিন্দাদের খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছে। খাদ্য সহায়তার মধ্যে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এক হাজার ৬শ বাসিন্দা প্রত্যেককে ৩০ কেজি করে চাল, রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলীর কন্যা কানিজ ফাতেমা চৈতি’র অর্থায়নে এক হাজার ৩০০ যৌনকর্মীকে ২ কেজি আটা, ১ কেজি আলু ও ১ লিটার করে সয়াবিন তেল এবং বেসরকারী উন্নয়ন সংগঠন মুক্তি মহিলা সমিতির পক্ষ থেকে ৫০৮ পিস সাবান, ৫০ কেজি ব্লিসিং পাউডারসহ ৫ বছর বয়সের নিচের শিশুদের ২শ গ্রাম করে গুড়ো দুধের প্যাকেট, ৫০০ গ্রাম করে সুজি ও সেক্সনেটওয়ার্কের সহযোগিতা ২০জন নারীকে ৫০০ করে নগদ টাকা প্রদান করে।

সরকারী ও সংসদ সদস্যের কন্যার দেয়া খাদ্য সহায়তা প্রদান কালে উপস্থিত ছিলেন, গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) আসাদুজ্জামান চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবায়েত হায়াত শিপলু, দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মন্ডল প্রমুখ।

মুক্তি মহিলা সমিতির কর্মকর্তা আতাউর রহমান খান মঞ্জু জানান, চরম মানবিক বিপর্যায়ের মধ্যে থাকা পল্লীর বাসিন্দাদের ঘরে ঘরে গিয়ে তাদের কর্মীরা সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন। এতে জনসমাগম এড়িয়ে এই সহায়তা প্রদান করা সম্ভব হয়েছে।

গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবায়েত হায়াত শিপলু জানান, রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের বিশেষ বরাদ্দ থেকে পল্লীর বাসিন্দাদের মধ্যে ৩০ কেজি করে চাল বিতরন করা হয়েছে। পরবর্তীতে নগদ অর্থ বিতরনের জন্য তারা চেষ্টা করে যাচ্ছেন বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads