• বৃহস্পতিবার, ৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
নরসিংদীতে করোনায় স্বামীর মৃত্যুর ২ দিন পর উপর্সগ নিয়ে মারা গেলেন স্ত্রী

প্রতীকী ছবি

সারা দেশ

দুই দিন ব্যবধানে চলে গেলে মেয়রের বোন ও বোন জামাই

নরসিংদীতে করোনায় স্বামীর মৃত্যুর ২ দিন পর উপর্সগ নিয়ে মারা গেলেন স্ত্রী

  • নরসিংদী প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২০ মে ২০২০

নরসিংদীতে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে সামিউন বেগম (৫০) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টা ৩০ মিনিটে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

তবে পরিবারের দাবি, তিনি স্ট্রোক করে মারা গেছেন। এর দুদিন আগে ওই নারীর স্বামী হাজি শরীফ হোসেন মুক্তা (৫৭) করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। গত সোমবার ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

নিহত সামিউন বেগম মাধবদী পৌরসভার মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক ও নরসিংদী চেম্বার অব কমার্সের প্রেসিডেন্ট আলী হোসেন শিশিরের বড় বোন। আর সামিউন বেগমের স্বামী নরসিংদী সদর উপজেলার নুরালাপুরের বাসিন্দা। তাদের চার ছেলে সন্তান রয়েছে। দুই দিনের মধ্যে বাবা-মাকে হারিয়ে দিশেহারা সন্তানরা।

মাধবদী পৌরসভার মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক বলেন, আমার বোনের সোমবার করোনা পরীক্ষা করানো হলে তার ফলাফল নেগেটিভ আসে। ডাক্তার বলেছে, সে রাতে স্ট্রোক করে মারা গেছে।

মাধবদী পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক বলেন, বোন ও দুলা ভাই হারানো যে কত কষ্টের সেটা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। মৃত্যুর আগে আমার বোন আমাদের সবাইকে খোঁজে ছিল। তার সাথে আমরা কেউ কথা বলতে পারিনি। ডাক্তারদের সাথে কথা হয়েছে বোনের লাশ নিয়ে কিছুক্ষন পর আমরা বাড়ি ফিরব।

এদিকে নরসিংদী চেম্বার অব কর্মাসের প্রেসিডেন্ট আলী হোসেন শিশির বলেন আমার বোন শরীরের জ্বর-ঠাণ্ডা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। ভর্তি হওয়ার পর জ্বর ও ঠাণ্ডা ভালো হয়ে যায়। এবং করোনা পরীক্ষা করানো হলে তার ফলাফল নেগেটিভ আসে। কিন্তু আমার বোন গরম পানি দিয়ে নাকের মাধ্যমে বেশি বেশি ভাব নিয়েছে। আর ভাব নিতে গিয়ে শ্বাসনালীতে সমস্য হয়। যার জন্য শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। আর রাতে স্ট্রোক করে মারা যায়।

নরসিংদী করোনা প্রতিরোধ সেলের কুইক রেসপন্স টিমের আহবায়ক মোহাম্মদ শাহ আলম মিয়া বলেন, সামিউন বেগম কিছু দিন তার স্বামীর সংর্স্পশে ছিলেন। শরীরের জ্বর-ঠান্ডার মত কিছু লক্ষণ ছিল। তাই সোমবার তাকে করোনা পরীক্ষা করানোর হয়। তারপর করোনা পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ আসে। সে রাতে স্ট্রোক করে মারা গেছেন ডাক্তার বলছে। আমাদের হাতে ডাক্তারের সকল কাগজ পত্র আছে সিভিল সার্জন সব কিছু যাচাই করে একটি সিদ্ধান্ত দিবে। তারপরও আমরা সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে,স্বাস্থ্য বিধি মেনে স্বল্প সংখ্যক লোকজন নিয়ে জানাজা নামাজ পড়ব।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বশেষ তথ্যমতে, নরসিংদী জেলায় এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত ৩২২ জন সনাক্ত হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ১৬৬ জন। আর মারা গেছেন ৪ জন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads