• সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭
ads
‘দেশের ৪ কোটি তামাক ব্যবহারকারী ভয়াবহ করোনা ঝুঁকিতে’

প্রতীকী ছবি

সারা দেশ

‘দেশের ৪ কোটি তামাক ব্যবহারকারী ভয়াবহ করোনা ঝুঁকিতে’

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ০৩ জুন ২০২০

দেশের ৪ কোটি তামাক ব্যবহারকারী ভয়াবহ করোনা ঝুঁকিতে রয়েছে বলে ‘কেমন তামাক কর চাই, বাজেট ২০২০-২১’ শীর্ষক আলোচনায় জানানো হয়েছে। আলোচনায় তামাকপণ্যের দাম বাড়িয়ে এ সংকট মোকাবেলার সুপারিশ করা হয়েছে।

তামাকবিরোধী সংগঠন প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান) এবং অ্যান্টি টোব্যাকো মিডিয়া এলায়েন্স-আত্মা যৌথভাবে গতকাল মঙ্গলবার এই আলোচনার আয়োজন করে।

আলোচনায় অর্থনীতিবিদ কাজী খলিকুজ্জামান আহমেদসহ দেশের বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ, সংসদ সদস্য ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ অংশ নেন।

আলোচনায় বক্তারা বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, তামাকাসক্ত ফুসফুস কোভিড-১৯ সংক্রমণে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। এই সতর্কতা আমলে নিলে বাংলাদেশে বর্তমানে প্রায় ৪ কোটি তামাক ব্যবহারকারী মারাত্মকভাবে করোনা সংক্রমণ ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। আসন্ন বাজেটে কার্যকরভাবে তামাকপণ্যের দাম বাড়ানো হলে তামাকের ব্যবহার কমবে এবং রাজস্ব আয় বাড়বে। বাড়তি রাজস্ব সরকার কোভিড-১৯ মহামারী সংক্রান্ত স্বাস্থ্য ব্যয় এবং প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়নে ব্যয় করতে পারবে।

এই বাজেট প্রস্তাব সমর্থন করে বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ এবং জাতীয় তামাকবিরোধী মঞ্চের আহ্বায়ক ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, ”করোনা আমাদের জন্য একটি সুযোগ তৈরি করেছে। আমরা এ সুযোগে কল্যাণের পথ বেছে নিব। এক্ষেত্রে আমাদের তামাক ব্যবহার বন্ধ করতে হবে এবং সার্বজনীন স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে গুরুত্ব দিতে হবে।”

তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতির কথা তুলে ধরে সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, যদি এবারের বাজেটে তামাকপণ্যে করারোপের ক্ষেত্রে কোন মৌলিক পরিবর্তন না আসে, এই বাড়তি ১১ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আয়ের সুযোগ দেশ হারাবে।

কেমন তামাক কর চাই শীর্ষক প্রস্তাবে আসন্ন বাজেটে সব শ্রেণির তামাক পণ্যের উপর ৫০ থেকে অধিক সম্পুরক কর আরোপের সুপারিশ করা হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads