• শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭
ads
রায়পুরায় প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণচেষ্টায় যুবক গ্রেপ্তার

প্রতীকী ছবি

সারা দেশ

রায়পুরায় প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণচেষ্টায় যুবক গ্রেপ্তার

  • রায়পুরা (নরসিংদী) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৩ জুলাই ২০২০

নরসিংদীর রায়পুরায় বাক প্রতিবন্ধী তরুণীকে (১৯) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।  

উপজেলার মহেশপুর ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামের গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় এ ঘটনা ঘটে। বাড়ির পাশের জমিতে গরু চড়াতে গিয়ে বাক প্রতিবন্ধী ১৯ বছর বয়সী এক তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত মোমেন মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে। 

বুধবার বাকপ্রতিবন্ধী মেয়ের মা বাদী হয়ে ধর্ষণচেষ্টায় অভিযুক্ত যুবকসহ তার দুই ও চাচার বিরুদ্ধে রায়পুরা থানায় মামলা দায়ের করেন। আসামিরা হলেন- ওই গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের তিন ছেলে মোমেন মিয়া (৩০), তোফাজ্জল হোসেন (২৫), মো. জামাল হোসেন (৩১) এবং তাদের চাচা নান্নু মিয়া (৬৫)।

পারিবারিক সূত্র জানায়, বাকপ্রতিবন্ধী মেয়েটি বুধবার সকালে বাড়ির পাশের জমিতে গরু চড়াতে যান। ওই সময় মোমেন পাশের নিঁচু জমির পানিতে জাল দিয়ে মাছ শিকার করছিল। তখন ওই বাকপ্রতিবন্ধী যুবতীকে একা পেয়ে একটি পাট ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় মেয়েটির মা মোমেনকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। এ ঘটনার বিচার চাওয়াতে অভিযুক্ত মোমেনের দুই ভাই তোফাজ্জল, জামাল ও তাদের চাচা নান্নু মিয়া রড দিয়ে পিটিয়ে মেয়েটির চাচাত ভাই রুহুল আমিনকে আহত করেন।

রুহুল আমিন বলেন, আমার চাচাত বোন বাকপ্রতিবন্ধী। সে জমিতে গরু চড়াতে গেলে জোরপূর্বক ধর্ষণচেষ্টা চালায় মোমেন। এ ঘটনার বিচার চাইতে মোমেনের বাড়িতে গেলে তার দুই ভাই ও চাচা মিলে আমাকে রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন।

মোমেনের মা বলেন, মেজো ছেলে মোমেন মাছ ধরতে গিয়েছিল। সেখানে কি ঘটেছে কিছুই জানি না। মেয়ের বাড়ির লোকজন এসে আমাকে মারধর করছে। তিন ছেলের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছে তারা। পুলিশ মেজো ছেলেকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে গেছে। অথচ বাকি দুই ছেলে তোফাজ্জল ও জামান এ ঘটনার কিছুই জানে না। আটককৃত ছেলের মুক্তিসহ তিন ছেলের বিরুদ্ধে দেওয়া মিথ্যা মামলার প্রত্যাহারের চেয়েছেন তিনি।


এ ব্যাপারে রায়পুরা ওসি (তদন্ত) লুৎফর রহমান বলেন, ধর্ষণচেষ্টায় জড়িত যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সেই সাথে বাকপ্রতিবন্ধী মেয়েটির চাচাত ভাইয়ের ওপর হামলায় জড়িত বাকি তিনজনকেও ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads