• রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭
ads
খাদ্য সহায়তা নিয়ে বন্যাদূর্গতদের পাশে ইবরাহীম খাঁ'র আলোকিত ভূঞাপুর গ্রুপ

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

সারা দেশ

খাদ্য সহায়তা নিয়ে বন্যাদূর্গতদের পাশে ইবরাহীম খাঁ'র আলোকিত ভূঞাপুর গ্রুপ

  • ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৫ আগস্ট ২০২০

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নে ৮০টি বানভাসী পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করলো স্থানীয় সেচ্ছাসেবী সংগঠন ইবরাহীম খাঁ'র আলোকিত ভূঞাপুর গ্রুপ।

বুধবার বিকেলে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের ১০টি গ্রামের ৮০ টি বন্যাদূর্গত পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবি সংগঠন ইবরাহীম খাঁ'র আলোকিত ভূঞাপুর গ্রুপ।

দেশব্যাপী করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করায় এতে পুরো দেশ স্থবির হয়ে পড়ায় কর্মহীন হয়ে পড়েছে কয়েক লাখ মানুষ। এদিকে করোনার ভয়াবহতা না কমতেই দেশব্যাপী শুরু হয়েছে ভয়াবহ বন্যা। যার ফলে পুরো দেশ আজ বন্যার পানিতে ভাসছে। বন্যায় উপজেলার প্রায় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি। এতে ঘরবাড়ি তলিয়ে কেউ কেউ আশ্রয় নিয়েছে খোলা আকাশের নিচে কেউবা বাঁধের উচু স্থানে।

তৃতীয় দফার দীর্ঘস্থায়ী বন্যায় খেটে খাওয়া দিনমজুর সহ অনেকে কর্মহীন হয়ে পড়ে। আর এতে এইসব পরিবারের মাঝে দেখা দেয় তীব্র খাদ্য সংকট। এই অবস্থায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বানভাসী পরিবারগুলো।

দেশের এমন ক্রান্তিকালে সরকারের সহায়তার পাশাপাশি স্থানীয় সংগঠন ইবরাহীম খাঁ'র আলোকিত ভূঞাপুর গোবিন্দাসীর ১০গ্রামের ৮০টি পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করে। এই খাদ্য সহায়তা বিতরণ কার্যক্রমে একাত্মতা পোষণ করে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন সূর্যতরুণ ফাউন্ডেশন এবং ইবরাহীম খাঁ ফাউন্ডেশনের পক্ষে প্রিন্সিপাল ইবরাহীম খাঁর দৌহিত্র মো: আতিকুল হাবিব, থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রাশিদুল ইসলাম ও কয়েকজন তরুণ প্রকৌশলী।

এ সময় উপদেষ্টা আব্দুল লতিফ তালুকদার, প্রভাষক সাধন চন্দ্র দাস, সাংবাদিক খাইরুল খন্দকারসহ সংগঠনের সকল সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

থানা অফিসার ইনচার্জ মো রাশিদুল ইসলাম বলেন, সরকারের সহায়তার পাশাপাশি ইবরাহীম খাঁ'র আলোকিত ভূঞাপুর গ্রুপের এমন মহতী উদ্যোগ আমাকে মুগ্ধ করেছে। এভাবেই দেশের ক্রান্তিকালে তরুণদের এগিয়ে আসতে হবে।

সংগঠনের সভাপতি কামরান পারভেজ ইভান বলেন, আমরা দেশের ক্রান্তিকালে যে কোন পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে দাঁড়াই। শুরু থেকেই আমরা বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছি। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এই সংকটময় পরিস্থিতি যতদিন দীর্ঘই হোক, আমরা পাশে আছি ইনশাআল্লাহ।

গ্রুপের প্রধান উপদেষ্টা শিক্ষক সন্তাষ কুমার দত্ত বলেন, সকল মানবিক কাজে এগিয়ে আসে এই সংগঠনের প্রতিটি সদস্য। আশা করছি তারা এ মানবিক কাজের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবে।

উপজেলা খানুরবাড়ি গ্রামের ৭০ বছরের বৃদ্ধা হাজেরা বেগম এই খাদ্য সহায়তা পেয়ে অনেক আনন্দিত হয়ে গ্রুপের সকলের মঙ্গল কামনা করেন।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads