• সোমবার, ১ মার্চ ২০২১, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭
বিহারি ক্যাম্প উচ্ছেদের প্রতিবাদে উত্তাল মিরপুর

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

সারা দেশ

মেয়র আতিকের কুশপুত্তলিকা দাহ

বিহারি ক্যাম্প উচ্ছেদের প্রতিবাদে উত্তাল মিরপুর

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৭ জানুয়ারি ২০২১

বিহারি ক্যাম্প ভাঙচুর ও হামলার প্রতিবাদে বিহারি নেতাদের অনশনে বসার পর থেকেই বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে পড়েছে মিরপুর। কিছুক্ষণ পরপর মেয়র আতিকুল ইসলাম ও ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুর রউফ নান্নুর কুশপুত্তলিকা দাহ করছে বিক্ষুদ্ধ বিহারিরা। 

আজ বুধবার রাজধানীর মিরপুরের ১১ এভিনিউ ৪ রোডে বড় মসজিদের সামনে  সকাল ৯টা থেকে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আপিল বিভাগের আদেশ অমান্য করে বিহারি ক্যাম্প ভাঙচুর ও হামলার ঘটনায় মেয়র আতিকসহ জড়িত সবার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ,ক্ষতিগ্রস্তদের পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণসহ পুনর্বাসন ও উচ্ছেদের আগে পুনর্বসনের ব্যবস্থা করতে প্রধানমন্ত্রীর সু-স্পষ্ট ঘোষণার দাবিতে বিহারিদের ৫টি সংগঠনের নেতাকর্মীসহ গণ-অনশনে বসেন বিহারিরা। উর্দু স্পিকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্ট, ওয়েল ফেয়ার মিশন অব বিহারিজ, এসপিজিআরসি মিরপুর শাখা, বাংলাদেশ মোহাজির ওয়েলফেয়ার এন্ড ডেভলপমেন্ট কমিটি মিরপুর শাখা ও মিরপুর নন-লোকাল রিলিফ কমিটির যৌথ উদ্যেগে এ গণ-অনশন পালিত হচ্ছে। তাদের বসার পরপরই স্থানীয় বিহারিরা জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন।

এ বিষয়ে উর্দু স্পিকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্ট’র সভাপতি মো. সাদাকাত খান ফাক্কু বলেন, আগামী ২ মে পর্যন্ত আপিল বিভাগের স্থিতাবস্থা থাকা সত্তেও অবৈধভাবে আমাদের ক্যাম্পের ঘর-বাড়ি ভাঙচুর করেছে ডিএনসিসি। মেয়র আতিকুল ইসলামের উপস্থিতিতে আমাদের ওপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে। হামলার সময় কাউন্সিলর নান্নুর ভাই নিরীহ বিহারিদের অস্ত্র দেখিয়ে ভয় দেখানোর চেষ্টা করেছেন। আমরা এ হামলার সাথে জড়িত মেয়র আতিকসহ সকলের শাস্তি চাই।

তিনি বলেন, গত ২১ জানুয়ারি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী হাজার হাজার গৃহহীনদের বাড়ী উপহার দিয়েছেন। সেদিনিই মিরপুরে সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা চালিয়ে হাজারো উর্দুভাষীদের গৃহহীন করেছেন ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলাম। আমাদের এই ক্যাম্পগুলোতে ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুর রউফ নান্নুসহ শতাধিক প্রভাবশালীদের প্লট রয়েছে। উচ্ছেদ অভিযানের পরপরই এ প্লটগুলোর বেশ কিছু জায়গা দখল করা হয়েছে। ন্যায় বিচারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন বিহারিদের এ নেতা।

ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজের সভাপতি মোস্তাক আহমেদ, উর্দু স্পিকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্টের সভাপতি মোঃ সাদাকাত খান ফাক্কু,সাধারণ সম্পাদক শাহিদ আলি বাবলু, এসপিজিআরসি মিরপুরের সভাপতি আলি মোহাম্মদ, ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজের সাধারণ সম্পাদক মো. হেলাল, মিরপুর ১১ রিলিফ কমিটির চেয়ারম্যান সারফারাজ আলম, এসপিজিআরসি মিরপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক মাহতাব,আলম,ইউএসপিওয়াইআরএম'র সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুর রেজা খান, দপ্তর সম্পাদক শেখ নাজের উদ্দিন রাশেদ, এসপিজিআরসি মিরপুর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহজাহান, প্রচার সম্পাদক মো. আরমান, ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আনোয়ার,উর্দুভাষী যুব-ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি ইমরান খান, সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ আলম, ওয়েলফেয়ার মিশন অব বিহারিজ স্টুডেন্টের সভাপতি ইমরান আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক দিলশাদ আহমেদ প্রমুখ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads