• সোমবার, ১ মার্চ ২০২১, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭

সারা দেশ

মৃত শিশুকে রাতভর ওঝা দিয়ে বাঁচানোর চেষ্টা, সকালে দাফন

  • মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সাপের কামড়ে মারা যাওয়া মৃত শিশুকে রাতভর তিন স্থানের ওঝা দিয়ে বাঁচানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে ওই শিশুকে সকালে দাফন করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) সকাল ৯টার দিকে মৃত ওই শিশুকে মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার সোনারং সামাজিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। এর আগে রাতভর ৩ দফায় মৃত শিশুকে ওঝা দিয়ে বাঁচানোর চেষ্টা করে নিহতের পরিবার।

জানাগেছে, উপজেলার পুড়াপাড়া গ্রামের দুলাল শেখের ছেলে পুরাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণীর ছাত্র জুনায়েদ (৯) সোমবার বিকাল ৪টার দিকে তার নিজ বাড়ির পাশে পুড়াপাড়া গ্রামের দেওয়ান বাড়ির পুকুরে ডুব দিয়ে মাছ ধরেছিলেন। এ সময় বিষাক্ত সাপ তার মাথায় কামড় দিলে সে বাড়িতে ফিরে মৃত্যুর কোলে ঢলে পরে। পরে তাকে উদ্ধার করে টঙ্গীবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পরে ওই শিশুকে বাড়ি নিয়ে যাওয়া হলেও এলাকার কতিপয় ব্যক্তির পরামর্শে তাকে বেদে পল্লিতে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়। প্রথমে তাকে টঙ্গিবাড়ী উপজেলার বিয়াইন্না বেদেপল্লীতে পরে সোনারং বেদেপল্লীতে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা দিয়ে ব্যর্থ হয়ে সুবচনী গ্রাম হতে নিজ বাড়িতে বেদে এনে গভীর রাত পর্যন্ত চিকিৎসা চলে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হয়ে তাকে সকালে দাফন করে তার পরিবার।

নিহতের মামা আরশাদুল জানান, জুনায়েদ বাড়ির পাশের পুকুরে মাছ ধরতে গেলে বিশাক্ত সাপ তাকে কামড় দিলে বাড়ি এসে সে ঢলে পরে। পরে তাকে আমরা হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করে।

এ ব্যাপারে নিহতের প্রতিবেশী সিহাদ দেওয়ান জানান, হাসপাতালে নেওয়ার পর ডাক্তার মৃত ঘোষণা করলেও এলাকার কতিপয় ব্যক্তির পরামর্শে প্রথমে বেদেপল্লীতে নিয়ে ওই শিশুকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে সুবচনী হতে বেদে বাড়িতে এনে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads