• বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৭
শীতলক্ষ্যায় নৌযান চলাচলে নির্দেশনা না মানলে কঠোর ব্যবস্থা

ছবি: বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

শীতলক্ষ্যায় নৌযান চলাচলে নির্দেশনা না মানলে কঠোর ব্যবস্থা

  • আব্দুল কাইয়ুম, সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) 
  • প্রকাশিত ০৭ এপ্রিল ২০২১

শীতলক্ষ্যা নদীতে নৌযান চলাচলে কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে জেলা প্রশাসক মো. মোস্তাইন বিল্লাহ স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কয়লাঘাট নামক স্থানে নৌ দুর্ঘটনায় ৩৪ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। নদীর নাব্যতা কম হওয়ায় এবং কালবৈশাখী মৌসুম আসন্ন হওয়ায় বিভিন্ন ধরণের নৌদুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা প্রতীয়মান হয়। যেকোন ধরণের নৌদুর্ঘটনা প্রতিরোধে অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল অধ্যাদেশ ১৯৭৬ এর ৭০(১)(ক) ধারা এবং নৌপরিবহণ অধিদফতর এর ২০১৮ সালের নয় সেপ্টেম্বর ও ২০২০ সালের ২১ সেপ্টেম্বরের স্বারক পত্রের প্রেক্ষিতে আটটি নির্দেশনা উল্লেখ করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

নির্দেশনাগুলো হলো

- নৌপথে সন্ধ্যা ৬ টা হতে সকাল ৬ টায় পর্যন্ত বাল্ডহেড চলাচল সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ করা হলো।

- বৈধ সনদধারী ব্যতীত নৌযানের মাস্টার, ড্রাইভার, সুকানি, গ্রিজার প্রকৌশলী বা ইঞ্জির চালক দ্বারা নৌযান চালানো যাবে না।

- যাত্রীবাহী নৌযানে সার্ভে সনদে উল্লিখিত যাত্রী সংখ্যার অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা যাবে না।

-অভ্যন্তরীণ নৌযান চলাচলের সময় অতিরিক্ত মালামাল বোঝাই করা যাবে না।

- প্রত্যেক অভ্যন্তরীণ নৌযান যখন চলাচল অবস্থায় থাকে তখন সংঘর্ষ এড়ানোর অথবা দিক নিয়ন্ত্রণ এবং পাল তুলে চলার নির্ধারিত নিয়মাবলি অনুসরণ করতে হবে।

-দুর্ঘটনা প্রতিরোধে অগ্নি নির্বাপক সরঞ্জাম, জীবন রক্ষাকারী যন্ত্রপাতি এবং অন্যান্য সরঞ্জাম ব্যতীত কোন নৌযান চলাচল করতে পারবে না।

-রুট পারমিট, সময়সূচি, ভাড়ার তালিকা প্রদর্শন ব্যতীত নৌযান চালানো যাবে না।

-নৌ নিরাপত্তা ও নৌ চলাচল সংক্রান্ত আইন কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।

উপর্যক্ত শর্তাবলী পালনে ব্যর্থ হলে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ দন্ডবিধি ১৮৬০ এবং অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল অধ্যাদেশ ১৯৭৬ এর বিধানমতে প্রয়োজনীয় কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads