• সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads

ক্রিকেট

এনামুল ইন, সৌম্য আউট

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৭ জানুয়ারি ২০১৮

ঘরোয়া ক্রিকেটে তার ব্যাট ছিল খোলা তরবারি। প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচেও কচু কাটা করেছেন বোলারদের। মাস কয়েকের ব্যবধানে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি তারই প্রমাণ রাখে। তারপর থেকেই জোর আলোচনা, আবার জাতীয় দলে ফিরতে চলেছেন এনামুল হক বিজয়।
ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্য প্রাথমিক ৩২ সদস্যের তালিকায় ছিলেন। এবার ঘরোয়া ক্রিকেটে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পুরস্কার পেলেন বিজয়। প্রায় দুই বছর পর জায়গা করে নিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে। গতকাল ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচের জন্য ১৬ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। সেই স্কোয়াডে বড় চমকের নাম এনামুল হক বিজয়।
তবে হতাশার গল্পও আছে। সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে থাকলেও ঘরের মাঠে খেলা হচ্ছে না দুজনের। স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছেন ওপেনার সৌম্য সরকার ও পেসার তাসকিন আহমেদ। বাদ পড়েছেন লিটন কুমার দাস, মুমিনুল হক ও পেসার শফিউল ইসলামও। বিজয়ের সঙ্গে মূল দলে জায়গা পেয়েছেন আরও দুজন। তারা হলেন মোহাম্মদ মিথুন ও পেসার আবুল হাসান রাজু। ইনজুরির সঙ্গে লড়্ াকরা মোস্তাফিজুর রহমানও আছে দলে। তার সঙ্গে যোগ দিয়েছেন সানজামুল ইসলাম।
এনামুল সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেন ২০১৫ সালের মার্চ মাসে বিশ^কাপে। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে। এরপর তার সময়টা কেটেছে ঘরোয়া ক্রিকেটে লড়াই করে। সাদা জার্সিতে সেই লড়াইয়ের ফল এবার তিনি দেখবেন জাতীয় দলের রঙীন জার্সিতে। তার মতো দীর্ঘদিন পর দলে ফিরেছেন মোহাম্মদ মিথুনও। ২০১৪ সালে বাংলাদেশের কোচ হিসেবে হাথুরুসিংহের অভিষেক সিরিজে ভারতের বিপক্ষে দুটি ওয়ানডে খেলেই বাদ পড়েন তিনি। অবশেষে হাথুরু অধ্যায় শেষে আবার ফিরলেন ওয়ানডে দলে। বাদ পড়েছেন ২০১৪ সালের ওই সিরিজেই ওয়ানডে অভিষিক্ত তাসকিন আহমেদ। সব মিলিয়ে আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশ দলে পাঁচটি পরিবর্তন এসেছে।
শীতের কারণে ত্রিদেশীয় সিরিজের সময়সূচিতে আনা হয়েছে খানিক পরিবর্তন। শিশিরের দৌরাত্ম থেকে বাঁচতে বেলা ১টার পরিবর্তে ম্যাচ শুরু হবে ১২টা থেকে। অন্যদিকে দর্শক যাতে খেলা দেখে দ্রুত বাসায় ফিরতে পারে, এমনটিও মাথায় রাখা হয়েছে। ১৫ জানুয়ারি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ত্রিদেশীয় সিরিজ। ১৯ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। প্রতি দল একে অন্যের সঙ্গে দুবার করে খেলবে। পয়েন্ট টেবিলের সেরা দুই দল ২৭ জানুয়ারি ফাইনালে লড়বে।
ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষে ৩১ জানুয়ারি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা প্রথম টেস্ট। ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে ফের দুদল আসবে ঢাকায়। টেস্ট সিরিজ শেষে দুই দল খেলবে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ।
১৫ ফেব্রুয়ারি মিরপুরেই প্রথম টি-টোয়েন্টিতে নামবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা। ১৮ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার মধ্যকার শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি হবে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এর আগে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ার রাউন্ডের খেলা সিলেটে হলেও সেখানে বাংলাদেশের কোন ম্যাচ হয়নি। এবারই প্রথম দ্বি-পাক্ষিক সিরিজের ম্যাচ পাচ্ছে সিলেট।
বাংলাদেশ ওয়ানডে দল: মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, এনামুল হক বিজয়, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, নাসির হোসেন, সাব্বির রহমান, মোহাম্মদ মিথুন, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, আবুল হাসান, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, সানজামুল ইসলাম।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads