• বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads

ফাইল ফটো

ক্রিকেট

আজ শুরু আইপিএল

সাকিব-মোস্তাফিজেই চোখ সবার

উদ্বোধনী ম্যাচে রাত সাড়ে ৮টায় লড়বে চেন্নাই সুপার কিংস-মোস্তাফিজের দল মুম্বাই ইন্ডিয়ানস

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ০৭ এপ্রিল ২০১৮

আজ থেকে পর্দা উঠবে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১১তম আসর। উদ্বোধনী ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশের কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানের দল মুম্বাই ইন্ডিয়ানস- প্রতিপক্ষ নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দু’আসর পর ফেরা চেন্নাই সুপার কিংস। বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায় মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে শুরু হবে ম্যাচটি।

এবারের আসরে অংশ নিচ্ছেন বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার। প্রথম ম্যাচে মোস্তাফিজের দল মাঠে নামলেও সাকিবকে অপেক্ষা করতে হবে আরো দু’দিন। ৯ এপ্রিল মঙ্গলবার আসরে প্রথমবারের মতো মাঠে নামবে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। নিজেদের মাঠ রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে সাকিবের দলের প্রতিপক্ষ রাজস্থান রয়্যালস।

আইপিএলে লড়বে ভারতসহ নানা দেশের ক্রিকেটার। এতে থাকছে বাংলাদেশেরও দুজন, মোস্তাফিজ ও সাকিব। ফলে বাংলাদেশের ভক্তদের চোখ থাকবে এই দু’জনের ওপরই। সাকিবের কারণে আগে কলকাতা নাইট রাইডার্সের সমর্থক ছিল বেশি। এবার তা ভাগ হয়ে যাবে সানরাইজার্স হায়দরাবাদে। আবার মোস্তাফিজের কারণে অনেকে সাপোর্ট করবে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসেরও। সব মিলিয়ে আইপিএলে কেমন করে মোস্তাফিজ ও সাকিবের দল, সেটা দেখতেই উন্মুখ হয়ে আছে সমর্থক-অনুরাগীরা।

অন্যবারের মতো এবারো আটটি দল অংশ নেবে আইপিএলে। দলগুলো হলো বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ানস, চেন্নাই সুপার কিংস, রাজস্থান রয়্যালস, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু, কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব, কলকাতা নাইট রাইডার্স, দিল্লি ডেয়ারডেভিলস ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

আইপিএলের আগের দশ আসরের মধ্যে রাজস্থান রয়্যালস একবার, ডেকান চার্জার্স একবার, চেন্নাই সুপার কিংস দুইবার, মুম্বাই ইন্ডিয়ানস তিনবার, কলকাতা নাইট রাইডার্স দুইবার ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদ একবার করে চ্যাম্পিয়ন হয়। আগামী ২৭ এপ্রিল ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে ভারতীয় টি-টোয়েন্টি এই ক্রিকেট লিগের।

আসর শুরু আগে জনপ্রিয় এই টুর্নামেন্টের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় নিলাম অনুষ্ঠিত হয়। আট দলের এই প্রতিযোগিতায় দুর্নীতির দায়ে দু’বছর নির্বাসনে থাকা চেন্নাই সুপার কিংস ও রাজস্থান রয়্যালস আবার আসরে ফিরেছে। তাদের ফেরার কারণে যাতে খেলোয়াড় সঙ্কট না হয়, সেজন্য সর্বোচ্চ চারজন খেলোয়াড় ধরে রেখে বাকি খেলোয়াড়দের ছেড়ে দেওয়ার নিয়ম করা হয়। এ কারণে ১ হাজার ১২২ জন খেলোয়াড় নিবন্ধন করে, যা আইপিএলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

তাদের মধ্য থেকে ৫৭৮ জন খেলোয়াড় বাছাই করে ২৭ ও ২৮ জানুয়ারি বেঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠিত হয় নিলাম। ‘এলিট’ গ্রুপে রাখা হয় সাকিবকে। নিলামে তাকে নিয়ে কোনো আগ্রহ দেখায়নি তার পুরনো দল কলকাতা। পরে ২ কোটি রুপিতে সাকিবকে দলে ভেড়ায় সানরাইজার্স। তবে বাংলাদেশের আরেক ক্রিকেটার মোস্তাফিজকে ছেড়ে দেয় অরেঞ্জ আর্মিরা। পরে কাটার মাস্টারকে দলে নেয় মুম্বাই ইন্ডিয়ানস।

এরই মধ্যে মুম্বাইয়ে অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন তিনি। তাকে নিয়ে বাড়তি আগ্রহ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দলটির। দলের অধিনায়ক রোহিত শর্মা জানান, ‘মোস্তাফিজকে নিয়ে তাদের বাড়তি পরিকল্পনা রয়েছে। শিরোপা ধরে রাখার মিশনে মোস্তাফিজ বড় ভূমিকা রাখতে পারবে বলে আমরা আত্মবিশ্বাসী।’

এদিকে এতদিন কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেললেও এবার সাকিবকে দেখা যাবে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের জার্সিতে। নতুন দলের সঙ্গে যোগ দিয়ে এরই মধ্যে সাকিব জানিয়ে দিয়েছেন তার লক্ষ্য শুধুই ‘শিরোপা’। প্রথম দিনের অনুশীলন শেষে সাকিব বলেন, ‘দারুণ লাগছে। অনুশীলনের আগে নার্ভাস ছিলাম। কিন্তু এখন অনেক আত্মবিশ্বাসী। আশা করি এ আত্মবিশ্বাস টুর্নামেন্টে শেষ পর্যন্ত ধরে রাখতে পারব।’

আইপিএলে এবারই প্রথম ব্যবহার করা হবে ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম (ডিআরএস)। ডিআরএস ব্যবহার করে ম্যাচ অফিসিয়াল আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত যাচাই করা হয়ে থাকে। বেশ কয়েক বছর যাবৎ এই প্রযুক্তির বিরোধিতা করে আসছিল ভারত। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো টেস্টে ডিআরএস ব্যবহারে সম্মতি হয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। আজ থেকে শুরু হওয়া আইপিএলে প্রতিটি দল প্রতি ইনিংসে একটি করে রিভিউর আবেদন করতে পারবে।

এ বিষয়ে আইপিএলের চেয়ারম্যান রাজীব শুক্লা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, ‘প্রযুক্তিটি ব্যবহারের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই আলোচনা হচ্ছে। তাই আইপিএলের বর্তমান আসর থেকে আধুনিক এই প্রযুক্তি ব্যবহূত হবে।’

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads