• রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
টাইগারদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু

শুরু হলো বিশ্বকাপ প্রস্তুতি। গতকাল মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে অনুশীলনে বাংলাদেশের দুই পেসার রুবেল হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান

ছবি : বাংলাদেশের খবর

ক্রিকেট

টাইগারদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু

  • স্পোর্টস রিপোর্টার
  • প্রকাশিত ২৩ এপ্রিল ২০১৯

আগেই ঘোষণা করা হয়েছিল, ২২ এপ্রিল থেকে শুরু হবে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ক্যাম্প। যেখানে একই সঙ্গে আয়ারল্যান্ডে হতে যাওয়া ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্যও নিজেদের ঝালিয়ে নেবেন ক্রিকেটাররা। সে লক্ষ্যে বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের এবং আয়ারল্যান্ডের ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্য বাড়তি ২ জনসহ মোট ১৭ জনের দল ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

যেমন কথা তেমন কাজ। গতকাল সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হয়ে গেছে মাশরাফিদের প্রস্তুতি ক্যাম্প। তবে ক্যাম্পে নেই স্কোয়াডে থাকা সিংহভাগ ক্রিকেটারই। এর কারণ সহজেই অনুমেয়। চলছে ঢাকা প্রিমিয়ার সুপার লিগের সেরা হওয়ার লড়াই। আজ মঙ্গলবার শেষ হবে এ খেলা, হবে শিরোপার নিষ্পত্তি। যে কারণে আজ শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি সেরে নিচ্ছে দলগুলো। তাই বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা খেলোয়াড়রাও যোগ দিয়েছেন নিজ নিজ দলের অনুশীলনে।

তবে প্রায় সবাই রিপোর্ট করে গেছেন জাতীয় দলের অনুশীলনে। এরপর যোগ দিয়েছেন নিজ নিজ দলের সঙ্গে। আবাহনী লিমিটেডের হয়ে খেলছেন স্কোয়াডে থাকা সর্বোচ্চ ৮ ক্রিকেটার- মাশরাফি বিন মর্তুজা, সৌম্য সরকার, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সাব্বির রহমান, মোহাম্মদ মিঠুন, রুবেল হোসেন এবং মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। এছাড়া প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবে নাইম হাসান, মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবে লিটন দাস, প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবে আবু জায়েদ রাহী এবং রেলিগেশন জোনের দল ব্রাদার্স ইউনিয়নে খেলেছেন ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বি। আইপিএলের কারণে ভারতে অবস্থান করছিলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। যার দেশে ফেরার কথা রয়েছে গতকালই।

প্রিমিয়ার ক্রিকেটে ব্যস্ত থাকায় প্রথম দিনের অনুশীলনে পাওয়া যাবে না এসব ক্রিকেটারকে। তা আগেই জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক। তিনি বলেন, ‘(ক্যাম্পে কয়জন থাকবে) এটা এই মুহূর্তে বলা মুশকিল। প্রিমিয়ার লিগ শেষ হবে ২৩ এপ্রিল। সেই হিসেবে কোচেরও প্ল্যান একটু চেঞ্জ করেছে। ২৮-২৯ তারিখে পুরো দল একসঙ্গে প্র্যাকটিস করবে।’

এ কারণে পরিকল্পনায় পরিবর্তনের কথা জানিয়ে তিনি আরো বলেন, ‘প্রিমিয়ার লিগ শেষ করার পর এক-দুই দিনের রেস্টের ব্যাপার আছে। কোচ ওইভাবে প্ল্যান করছে। প্ল্যানটা কোচের, আমার পক্ষে আসলে বলা মুশকিল।’

প্রধান নির্বাচকের কথা মোতাবেক প্রিমিয়ার লিগ না খেলা তিন ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং তামিম ইকবাল যোগ দিয়েছেন গতকাল প্রথম দিনের অনুশীলনে। এছাড়া প্রথম পর্বেই বিদায় নেওয়া শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবের পেসার মোস্তাফিজুর রহমান এবং ২৫ মার্চ আবাহনীর হয়ে সবশেষ খেলা রুবেল হোসেনও যোগ দেন এ ক্যাম্পে।

গতকাল সকাল ৯টায় মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে রিপোর্ট করেন ক্রিকেটাররা। ইনডোরে প্রথম দিন চলে শুধু ফিটনেস নিয়ে কাজ। এরপর ছুটি পান সবাই। তবে চাইলে ব্যক্তিগত অনুশীলন চালিয়ে যেতে পারবেন খেলোয়াড়রা, তাতে কোনো বাধা নেই।

ক্যাম্প পরিচালনা করতে এরই মধ্যে ঢাকায় ফিরেছেন জাতীয় দলের কোচিং স্টাফরা। এসেই কাজে নেমে গেছেন তারা। তামিম-মাহমুদউল্লাহদের ফিটনেস নিয়ে কাজ করছেন স্ট্রেন্থ অ্যান্ড কন্ডিশনিং কোচ মারিও ভিল্লাভারায়েন। এক সপ্তাহের এই ক্যাম্পের মূল কাজ হবে ইনডোরে। গত কয়েক দিন ধরে ইনডোরে চারটি উইকেট তৈরিতে কঠোর পরিশ্রম করতে দেখা গেছে গ্রাউন্ডসম্যানদের। গামিনি ডি সিলভা ছিলেন এর তত্ত্বাবধানে।

ইংলিশ কন্ডিশনের কথা বিবেচনা করে উইকেট প্রস্তুত করা হয়েছে। আগামী কয়েক দিন ওই উইকেটেই প্রস্তুতি নেবে বাংলাদেশ। ক্যাম্পের সময়ে ইনডোরের উইকেট ছাড়াও বোলিং মেশিনে ব্যাটিং করবেন মুশফিক-তামিমরা। ইনডোরের তত্ত্বাবধায়ক মোর্শেদ চৌধুরী জানিয়েছেন- ‘ড্রেসিংরুম, বোলিং মেশিনসহ সবকিছু প্রস্তুত রাখা হচ্ছে। জাতীয় দলের ক্যাম্পের কারণে শবেবরাতের ছুটিও বাতিল করা হয় ইনডোরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের।’

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads