• মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯, ৪ আষাঢ় ১৪২৫
ads
রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে অজিদের হারালো কোহলিরা

ছবি : সংগৃহীত

ক্রিকেট

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে অজিদের হারালো কোহলিরা

  • মোস্তফা তারিক আল বান্না
  • প্রকাশিত ১০ জুন ২০১৯

চলমান বিশ্বকাপ ক্রিকেটের অন্যতম দুই ফেভারিট দলের ব্যাট-বলের জমজমাট লড়াইয়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩৬ রানের ব্যবধানে জয় পেয়েছে সাবেক চ্যাম্পিয়ন ভারত। গতকাল লন্ডনের কেনিংটন ওভাল মাঠে বিরাট কোহলির দলের ৫ উইকেটে ৩৫২ রানের জবাবে অস্ট্রেলিয়া সব উইকেট হারিয়ে করে ৩১৬ রান। শিখর ধাওয়ানের দারুণ এক সেঞ্চুরি, কোহলি ও রোহিত শর্মার হাফ সেঞ্চুরি এবং ভুবনেশ্বর কুমার, বুমরাহ ও চাহালের বোলিংয়েই ভারতের এই জয় নিশ্চিত হয়েছে। এটি তাদের টানা দ্বিতীয় জয়। অস্ট্রেলিয়ার প্রথম হার।

অস্ট্রেলিয়ার এটি ছিল তৃতীয় ম্যাচ, আর ভারতের দ্বিতীয়। অস্ট্রেলিয়া প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটে আর দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৫ রানে পরাজিত করে। ভারত তাদের প্রথম ম্যাচে ৬ উইকেটে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে দেয়।

৩৫৩ রানের বিশাল টার্গেট অতিক্রম করতে শুরুটা খুব মন্দ হয়নি অস্ট্রেলিয়ার। তাদের দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চ উদ্বোধনী জুটিতে বেশ স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যাট করতে থাকেন। ফিঞ্চ দ্রুতগতিতে রান তুললেও ওয়ার্নার ছিলেন ধীরগতির। দুর্ভাগ্য অস্ট্রেলিয়া দলের। দলীয় ৬১ রানের সময় ২ রান নিতে গিয়ে রানআউট হয়ে যান ফিঞ্চ। তিনি ৩৫ বলে ৩টি চার ও ১টি ছয়ে ৩৬ রান করেন। ওয়ার্নারের সঙ্গে জুটি বাঁধেন সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। দলীয় ১৩৩ রানের সময় ওয়ার্নার আউট হন। চাহালের বলে তিনি ভুবনেশ্বরের হাতে ধরা পড়ার আগে ৮৪ বলে ৫৬ রান করেন। ওসমান খাজা মাঠে নেমে বেশ ভালো খেলছিলেন। তবে বুমরাহর একটি বলে উঠিয়ে মারতে গিয়ে বোল্ড হন। তিনি ৩৯ বলে ৪টি চার ও ১টি ছয়ে ৪২ রান করেন। দলীয় ২৩৮ রানের মাথায় স্মিথ এলবিডব্লিউ হন ভুবনেশ্বরের বলে। স্মিথ ৭০ বলে ৬৯ রান করেন। এরপর ভুবনেশ্বরের একই ওভারে স্টোনিস (০) বোল্ড হন। ধীরে ধীরে ম্যাচ ভারতের অনূকুলে চলে যেতে থাকে। দলীয় ২৪৪ রানে অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান ম্যাক্সওয়েল (২৮) চাহালের বলে বদলি ফিল্ডার জাদেজার হাতে ধরা পড়েন। এর পর কোল্টার নাইল (৪) আউট হন বুমরাহর বলে। শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার কোরি ৩৫ বলে ৫৫ রান করে অপরাজিত থাকেন।

ভারতের ভুবনেশ্বর ও বুমরাহ ৩টি করে এবং চাহাল ২টি উইকেট লাভ করেন।

এর আগে টস জিতে প্রথমেই ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক কোহলি। অধিনায়কের এই সিদ্ধান্ত ভুল প্রমাণ করেননি ভারতের দুই ওপেনার ধাওয়ান ও রোহিত। দলকে এক উড়ন্ত সূচনা এনে দেন এই দুই ব্যাটসম্যান। শুরু থেকে অজি বোলারদের বিরুদ্ধে ঝড়ো গতিতে রান তুলতে থাকেন ধাওয়ান। অন্যদিকে একপাশ আগলে রেখে কিছুটা ধীরেসুস্থে খেলতে থাকেন রোহিত। মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্সদের দিশাহারা করে ১৯ ওভারেই একশ রানের জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটসম্যান। এর মধ্যে ধাওয়ান ৫৩ বলে তুলে নেন ক্যারিয়ারের ২৭তম অর্ধশতক।

শতরানের জুটি হওয়ার দুই ওভার পরই ৬১ বলে নিজের ব্যক্তিগত ৪৭তম অর্ধশতক তুলে নেন রোহিত। তবে ফিফটি করার পর ইনিংসটা বড় করতে পারেননি আগের ম্যাচের এই সেঞ্চুরিয়ান। ইনিংসের ২৩তম ওভারে নাথান কল্টার নাইলের বল রোহিতের ব্যাটের কানায় লাগলে ক্যাচ ধরতে ভুল করেননি অজি উইকেটকিপার অ্যালেক্স কোরি। ৭০ বলে ৩ চার ও এক ছয়ে ৫৭ রান করে আউট হন এই ব্যাটসম্যান। 

দলীয় ২২০ রানে আউট হন ম্যাচসেরা ধাওয়ান। তিনি ১০৯ বলে ১৬টি চারে করেন ১১৭ রান। কোহলি ও পান্ডিয়ার ব্যাটে রান দ্রুতগতিতে এগোতে থাকে। ৩০১ রানের সময় আউট হন পান্ডিয়া। তিনি মাত্র ২৭ বলে ৪টি চার ও ৩টি ছয়ে করেন ৪৮ রান। দলের রান যখন ৩৩৮, তখন ধোনি তার ইনিংসের সমাপ্তি ঘটান ক্যাচ আউট হয়ে। স্টোনিস নিজের বলে নিজেই ক্যাচ লুফে নেন। ধোনি করেন ১৪ বলে ২৭ রান। ৩৪৮ রানের মাথায় কোহলি প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। স্টোনিসের ওই ওভারেই। কোহলি করেন ৭৭ বলে ৪টি চার ও ২টি ছয়ে করেন ৮২ রান।

অস্ট্রেলিয়ার স্টোনিস ৬২ রানে ২টি উইকেট লাভ করেন। আর কামিন্স, স্টার্ক ও কোল্টার নাইল ১টি করে উইকেট পান।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads