• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
টস জিতে ফিল্ডিংয়ে পাকিস্তান

সংগৃহীত ছবি

ক্রিকেট

টস জিতে ফিল্ডিংয়ে পাকিস্তান

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১২ জুন ২০১৯

টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ । আজ বুধবার ইংল্যান্ডের টনটনে মুখোমুখি হচ্ছে সাবেক দুই বিশ্বচ্যাম্পিয়ন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে লজ্জাজনক হার দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু হলেও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে।

যে ইংলিশদের এবারের বিশ্বকাপের ‘হট’ ফেভারিট বলা হচ্ছে, সেই তাদেরই হারিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। ট্রেন্ট ব্রিজে ৮ উইকেটে ৩৪৮ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করিয়ে পাকিস্তান পায় ১৪ রানের জয়। ৬২ বলে ম্যাচ জেতানো ৮৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন হাফিজ। ওই জয়টাই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সামনের ম্যাচে আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে হাফিজকে। বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের মোটেও ভয় পাচ্ছেন না তিনি। ৩৮ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার বলেছেন, ‘(বিশ্বকাপের) ১০ দলই হারতে পারে। ইংল্যান্ড যে ক্রিকেট খেলছিল, তাতে লোকজন বলাবলি করেছিল তাদের হারানো কঠিন।’

কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাকিস্তানের অতীত রেকর্ড মোটেও সুখকর নয়। ২০১৪ সালের অক্টোবরের পর মুখোমুখি ১৪ লড়াইয়ে মাত্র একবার জিততে পেরেছে পাকিস্তান। শেষ পাঁচটি বিশ্বকাপের মধ্যে চারটিতেই জয়লাভ করা অস্ট্রেলিয়া মার্চে সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাকিস্তানকে ৫-০ ব্যবধানে হোয়াইট ওয়াশ করেছিল। যদিও ওই সিরিজে পাকিস্তান তাদের সাতজন শীর্ষ খেলোয়াড়কে বিশ্রামে রেখেছিল।

গত শুক্রবার ব্রিস্টলে বৃষ্টির কারণে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামতে পারেনি পাকিস্তান। ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত পরিত্যক্ত হওয়ায় দুই দলকে এক পয়েন্ট করে দেওয়া হয়েছে। হাফিজ বলেন, ‘অবশ্যই বিষয়টি হতাশার। কিন্তু আবহাওয়ার ওপর কারো হাত নেই। এটা মেনে নিতেই হবে। আমি নিশ্চিত ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা যেভাবে খেলেছি, পরবর্তী ম্যাচেও সেটা বজায় রাখতে পারব। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাত্র ১০৫ রানে গুটিয়ে যাওয়া অবশ্যই ব্যাটসম্যানদের ভুল ছিল। তবে আমরা সেটা বুঝতে পেরেছি।’

বিশ্বকাপের ঠিক আগে ৪-০ ব্যবধানে ইংল্যান্ডের কাছে বিধ্বস্ত হয়েছিল পাকিস্তান। অথচ বিশ্বকাপে ইংলিশদের পরাজিত করে টানা ১১টি পরাজয়ের তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছে পাকিস্তান।

ক্রিকেটে খুব কম বোলারই আছেন যারা নিয়মিত ১৫০ প্লাস কিলোমিটার গতিতে বল করতে পারে। অস্ট্রেলিয়ার পেস বোলার মিচেল স্টার্ক তাদের মধ্যেই একজন। কিন্তু তাকে নিয়ে আলাদা কোনো প্ল্যান নেই পাকিস্তানের।

এমনকি স্টার্ককে মোকাবেলা করতে মুখিয়ে আছেন দলটির ওপেনার ইমাম উল হক। ইমাম বলেন, ‘স্টার্ক আমাদের জন্য কোনো হুমকি নয়। আসলে আমি তাকে খেলার জন্য মুখিয়ে আছি।’ অস্ট্রেলিয়া তাদের সর্বশেষ ম্যাচে ভারতের কাছে ৩৬ রানে হেরে যায়। পয়েন্ট তালিকায় ওপরে উঠতে হলে তাদেরও জয় ভিন্ন অন্য কোনো উপায় নেই। শক্তিমত্তায় যতই পার্থক্য থাকুক না কেন, এই দুই দলের ম্যাচটি দর্শকরা দারুণ উপভোগ করবে বলেই মনে হচ্ছে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads