• বুধবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ১৫ মাঘ ১৪২৬
রাতেই বিসিবি'র সঙ্গে ক্রিকেটারদের বৈঠক

১১ দফা দাবি দেওয়া আন্দোলনরত ক্রিকেটাররা গুলশানের একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন ডাকেন আন্দোলনরত ক্রিকেটাররা।

সংগৃহীত ছবি

ক্রিকেট

রাতেই বিসিবি'র সঙ্গে ক্রিকেটারদের বৈঠক

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২৩ অক্টোবর ২০১৯

গুলশানে সংবাদ সম্মেলন শেষে নিজেদের মধ্যে আলোচনার পর ক্রিকেটাররা এখন মিরপুরমুখী। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের সঙ্গে রাতেই আলোচনায় বসবেন তারা।

আজ বুধবার নাজমুল হাসানের ডাকে সাড়া দিয়ে মিরপুরের বিসিবি কার্যালয়ে বিকেলের বৈঠকে যাননি সাকিব-তামিমরা। সন্ধ্যায় গুলশানের একটি হোটেলে ক্রিকেটারদের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনে আসেন একজন আইনজীবী, জানান নতুন দুটিসহ ১৩টি দাবি নিয়ে বোর্ডের কাছে গেছে ক্রিকেটারদের চিঠি।

নতুন দাবিতে ক্রিকেট ব্যবস্থাপনার স্বচ্ছতা ও ক্রিকেট বোর্ডের মুনাফার একটি অংশের ভাগ চেয়েছেন ক্রিকেটাররা। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ম্যাচ ফি এক লাখ টাকা করার চাওয়া এসেছে। আর নারী ক্রিকেটারদের সঙ্গে পুরুষ ক্রিকেটারদের বেতনের ভারসাম্যের দাবি তুলেছেন তারা। ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান ক্রিকেটারদের এসব দাবির কথা তুলে ধরেন।

গুলশানে যখন ক্রিকেটারদের রুদ্ধদ্বার বৈঠক ও পরে সংবাদ সম্মেলন চলছিল, তখন বিসিবিতে বোর্ড সভাপতিসহ অন্য বোর্ড পরিচালকরা তাদের অপেক্ষায় আলোচনার জন্য। বোর্ডের কাছে দাবি জানিয়ে ধর্মঘট ডেকে সোমবার থেকেই সবধরনের ক্রিকেটীয় কার্যক্রমের দূরে আছেন ক্রিকেটাররা।

এর আগে গেল সোমবার কারো সঙ্গে কোনো আলোচনা ছাড়াই দেশের ক্রিকেটের দুর্বল দিকগুলো বস্তুনিষ্ঠ করার লক্ষ্যে ১১ দফা দাবি উত্থাপন করেন ক্রিকেটাররা। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত ক্রিকেটে ফিরবেন না বলেও হুমকি দেন তারা।

সব ধরনের ক্রিকেটীয় কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার ঘোষণা দেন সাকিব-তামিমরা। এতে শঙ্কায় পড়েছে জাতীয় দলের ভারত সফর। পাশাপাশি ঘরোয়া ক্রিকেটও স্থবির হয়ে গেছে।

পরিপ্রেক্ষিতে হার্ডলাইনে যায় বিসিবি। পরের দিন সংবাদ সম্মেলন করে ক্রিকেটারদের দাবি-দাওয়া অযৌক্তিক বলে উড়িয়ে দেয় তারা।

সংবাদ ব্রিফিংয়ে এর পেছনে যড়যন্ত্র রয়েছে বলে জানান বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান পাপন। তার ভাষ্যে, দেশের ক্রিকেটের অচলাবস্থা ঠিক করতে তেমন কোনো আভাস পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads