• রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
টেস্ট দলে অনেক পরিবর্তন

ফাইল ছবি

ক্রিকেট

টেস্ট দলে অনেক পরিবর্তন

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের জন্য ১৬ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। গুঞ্জনই শেষ পর্যন্ত সত্যি হলো। টেস্ট দল থেকে বাদ পড়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। পাকিস্তান সফরে অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটারের ব্যাটিংয়ের মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। ফলে স্কোয়াড ঘোষণার মধ্য দিয়ে তা আরো স্পষ্ট হলো। নিরাপত্তা শঙ্কায় পাকিস্তান সফরে না যাওয়া মুশফিকুর রহিম প্রত্যাশিতভাবে ফিরেছেন। অভিজ্ঞ এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানের সঙ্গে দলে ফিরেছেন তাসকিন আহমেদ, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মোস্তাফিজুর রহমান। টেস্ট দলে প্রথমবারের মতো ডাক পেয়েছেন ইয়াসির আলী চৌধুরী ও হাসান মাহমুদ। তবে ঘোষিত ১৬ সদস্যের দলে মাহমুদউল্লাহ ছাড়াও জায়গা হয়নি রুবেল হোসেন ও আল আমিন হোসেনের।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টানা দুই টেস্টে সেঞ্চুরি করার পর থেকে এই সংস্করণে সময়টা ভালো যাচ্ছে না মাহমুদউল্লাহর। সবশেষ ১০ ইনিংসে কেবল একটি ফিফটি করা অভিজ্ঞ এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানের লাল বলের ক্রিকেট থেকে বিশ্রাম প্রয়োজন বলে মনে করছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন।

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত থাকার জন্য টেস্ট ম্যাচের জন্য বিবেচনা করা হয়নি আল আমিনকে। ছোটখাটো চোট সমস্যা ভোগাচ্ছে এই পেসারকে। আপাতত লাল বলের ক্রিকেটে নির্বাচকদের ভাবনায় নেই পেসার রুবেল হোসেন। বিস্ময় জাগিয়ে দুই বছর পর টেস্টে ফিরে বাদ পড়েছেন তাই এক ম্যাচ খেলেই।

সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখে দলে নেওয়া হয়েছে ইয়াসির ও হাসানকে। গত এক বছরে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৬০-এর বেশি গড়ে রান করছেন ইয়াসির। তরুণ পেসার হাসান অবশ্য গত বছর খুব একটা ভালো করতে পারেননি। ৪০ এর বেশি গড়ে নিয়েছেন কেবল ৬ উইকেট।

চোট কাটিয়ে ফিটনেস প্রমাণ করে দলে ফিরেছেন তাসকিন ও মিরাজ। প্রধান কোজ রাসেল ডমিঙ্গো আভাস দিয়েছিলেন, আবার টেস্ট দলে ফিরতে প্রচুর কাজ করতে হবে  মোস্তাফিজকে। বাঁহাতি এই পেসার বেশি সময় নিলেন না। ফিরলেন ঠিক পরের টেস্টের দলে! আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি বিয়ে করতে যাচ্ছেন সৌম্য সরকার। এ জন্য ছুটি নেওয়ায় বাঁ হাতি এই ওপেনারকে বিবেচনা করা হয়নি।

ঘোষিত স্কোয়াড নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘আমার বিশ্বাস বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় আমরা সেরা সম্ভাব্য দলই গড়েছি। অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যর মিশেলে দলটি ভালো হয়েছে।’

দল থেকে বাদ পড়া ক্রিকেটারদের নিয়ে প্রধান নির্বাচক বলেন, ‘কিছু খেলোয়াড়ের জন্য এটা দুর্ভাগ্য যে তারা বাদ পড়েছে। তবে আমরা ভারসাম্য ও ধারাবাহিকতায় বেশি জোর দিয়েছি। মাহমুদউল্লাহর লাল বল থেকে বিরতির দরকার ছিল। চোট আছে আল আমিনের, সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের জন্য পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠতে তাকে সময় দেয়া হয়েছে। ওই ফরম্যাটে সে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আপাতত রুবেল লাল বলের পরিকল্পনায় নেই। ছুটি নেওয়ায় সৌম্যকে বিবেচনা করা হয়নি।’

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের মধ্যকার একমাত্র টেস্টটি মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হবে ২২ ফেব্রুয়ারি। এরআগে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে দুই দিনের (১৮ ও ১৯ ফেব্রুয়ারি) একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে জিম্বাবুয়ে। এই ম্যাচে বিসিবি একাদশের হয়ে খেলবেন আকবর আলীসহ বিশ্বজয়ী যুব দলের ৬ ক্রিকেটার।

বাংলাদেশের টেস্ট স্কোয়াড: তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, লিটন কুমার দাস, মোহাম্মদ মিঠুন, তাইজুল ইসলাম, নাঈম হাসান, আবু জায়েদ চৌধুরী, ইবাদত হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ,  মোস্তাফিজুর রহমান, হাসান মাহমুদ, ইয়াসির আলী চৌধুরী।

আরও পড়ুন



ফিচার

উন্মুক্ত পাঠশালা

  • আপডেট ২৮ নভেম্বর, ২০২০

শিশু

আপনার শিশুকে কেন বই পড়তে দেবেন

  • আপডেট ২৮ নভেম্বর, ২০২০

ফিচার

জলকাব্য-৩-এর চিত্রপ্রদর্শনী

  • আপডেট ২৮ নভেম্বর, ২০২০
বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads