• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
আলোচনায় জায়েদ খান

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান

সংরক্ষিত ছবি

ঢালিউড

আলোচনায় জায়েদ খান

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০১ আগস্ট ২০১৮

এফডিসি প্রাঙ্গণ দীর্ঘদিন পর সরব হয়ে ওঠে গত সোমবার সন্ধ্যায়। লাল-নীল বাতিতে আলোকিত হয় পুরো এফডিসি। শিল্পী সমিতির সামনের বাগান সাজানো হয়েছে যত্ন করে। হাজারো বেলুনের পাশাপাশি বাগানের চারদিকে বসানো হয়েছে ভ্রাম্যমাণ প্রজেক্টর। আয়োজনের কারণ একটাই— বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের জন্মদিন।

চলচ্চিত্রাঙ্গনের সহকর্মীদের থেকে শুরু করে প্রায় ৫০০ অতিথিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল জন্মদিনে। আয়োজনের দায়িত্বে ছিলেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। চিত্রাঙ্গনের বিভিন্ন সংগঠনের পাশাপাশি জায়েদ খানকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে এ দিন এফডিসিতে হাজির হয়েছেন প্রায় দুই হাজার মানুষ।

প্রায় শ খানেক সহকর্মীকে নিয়ে জন্মদিনের কেক কাটেন জায়েদ খান। কেক কাটার পরই শুরু হয় বিকট শব্দে আতশবাজি। টানা ২ মিনিট চলে এ আতশবাজি। এই আয়োজনে প্রশংসার পাশাপাশি নিন্দাও করেন অনেকে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট একজন বলেন, ‘এফডিসিতে এ রকম আয়োজন করাটা মোটেও ঠিক হয়নি। ব্যক্তিগত অনুষ্ঠান করার জন্য আরো অনেক জায়গা আছে।’

সোশ্যাল মিডিয়ায়ও শুরু হয়েছে এ নিয়ে নানা সমালোচনা। অনেকেই মনে করছেন, জায়েদ খান নিজেকে আলোচনায় রাখার জন্য নিজের জন্মদিনে এমন আড়ম্বরপূর্ণ আয়োজন করেছেন। তাদের মতে, একের পর এক চলচ্চিত্রে ব্যর্থ অভিনেতা হিসেবে দর্শকের সামনে আবির্ভাব হচ্ছেন জায়েদ খান। নায়ক হিসেবে যখন তিনি চূড়ান্তভাবে ব্যর্থ তখন এসব করে আলোচনা তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছেন।

অন্যদিকে কেপিআইভুক্ত এলাকায় এমন ধুন্ধুমার আয়োজন নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। তবে এ ব্যাপারে মানুষের সমালোচনাকে গুরুত্ব দিচ্ছেন না এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমির হোসেন। তিনি বাংলাদেশের খরবকে বলেন, ‘নিয়ম মেনে অনেকেই তাদের জন্মদিন এফডিসিতে পালন করেছেন। এটা দোষের কিছু না। জায়েদ খানও নিয়ম মেনে তার জন্মদিনের অনুষ্ঠান পালন করেছেন।’

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads