• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
ঈদের পর শুরু হচ্ছে পূর্ণিমার ‘গাঙচিল’

চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা

সংগৃহীত

ঢালিউড

ঈদের পর শুরু হচ্ছে পূর্ণিমার ‘গাঙচিল’

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৮ মে ২০১৯

গেল বছরের শেষপ্রান্তে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ‘গাঙচিল’ উপন্যাস অবলম্বনে চিত্রনায়িকা পূর্ণিমাকে নিয়ে নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল নির্মাণ শুরু করেছিলেন ‘গাঙচিল’ সিনেমাটি। নোয়াখালীতে এই সিনেমার শুটিং করতে গিয়ে চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা স্কুটি দুর্ঘটনার মুখোমুখিও হয়েছিলেন। তারপর নেয়ামুল পূর্ণিমার সহযোগিতায় ‘গাঙচিল’র কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু হঠাৎ করেই ওবায়দুল কাদের অসুস্থ হয়ে যাওয়ার কারণে নেয়ামুল সিনেমাটির নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেন। অবশেষে আল্লাহর অশেষ রহমতে ওবায়দুল কাদের সুস্থ হয়ে এরই মধ্যে দেশে ফিরেছেন। আর তাই নেয়ামুলও তার ‘গাঙচিল’ সিনেমার কাজ আবারো শুরু করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল বলেন, ‘যেহেতু ওবায়দুল কাদের ভাইয়ের উপন্যাস থেকেই সিনেমাটি নির্মাণ করছি; সর্বোপরি তিনি আমাদের দেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একজন রাজনীতিবিদ, তাই তার হঠাৎ অসুস্থতায় আমরা অনেকটাই দিশেহারা হয়ে পড়েছিলাম। তার প্রতি সম্মান রেখে, শ্রদ্ধা রেখেই আমরা সিনেমার নির্মাণকাজ বন্ধ রেখেছিলাম। তিনি আবার সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে এসেছেন, এটাই আমাদের কাছে অনেক আনন্দের বিষয়। আমরা এবার সিনেমাটির নির্মাণকাজ শেষ করার উদ্যোগ নিচ্ছি। আগামী ঈদুল ফিতরের পরপরই সিনেমাটির নির্মাণকাজ আবারো শুরু করতে যাচ্ছি ইনশাল্লাহ।’

চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা বলেন, ‘এই সিনেমায় কাজ করার জন্য আমি স্কুটি চালানো শিখেছি, আবার স্কুটি চালিয়ে শুটিং করতে গিয়ে দুর্ঘনারও শিকার হয়েছি। তারপরও চেষ্টা করেছিলাম কাজটি শেষ করার জন্য। কিন্তু কাদের ভাই অসুস্থ হয়ে যাওয়ার কারণে এর নির্মাণকাজ সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়। এখন যেহেতু আল্লাহর অশেষ রহমতে কাদের ভাই আমাদের মাঝে সুস্থ হয়ে ফিরে এসেছেন, তাই আবারো এর কাজ শুরু হবে আশা করছি। আমি যদিওবা এখনো শিডিউল দেইনি। কিন্তু আশা করছি ঈদের পরপরই গাঙচিলের কাজ শুরু করতে পারব।’

এদিকে এবারের ঈদে কোন নাটক টেলিফিল্মে দেখা যাবেনা চিত্রনায়িকা পূর্ণিমাকে। এর কারণে জানতে চাইলে পূর্ণিমা বলেন, ‘সত্যি বলতে কী এবার যে গরম পড়েছে, তাতে আমার পক্ষে কাজ করা কোনভাবেই সম্ভব নয়। কারণ এতো গরমে কাজ করলে আমি অসুস্থ হয়ে পড়ি। যদি শুটিং চলাকালীন আমি কোনো কারণে অসুস্থ হয়ে পড়ি, তাহলে তো একটি ইউনিটের অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে। এমন কিছু ভাবার কারণেই আমি এবারের ঈদে টিভির জন্য কাজ করা থেকে নিজেকে বিরত রেখেছি।’

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads