• শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads

ঢালিউড

চলচ্চিত্র পরিচালক মীর সাব্বির

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৫ আগস্ট ২০১৯

নাটকে মীর সাব্বিরের বিশেষায়িত করার প্রযোজন নেই। দর্শক তাকে সেভাবেই জানেন! এবার ছোটপর্দার গণ্ডি ছাড়িয়ে বড়পর্দায় নতুন পরিচয়ে পরিচিত হবেন। প্রথমবারের মতো চলচ্চিত্র পরিচালক হয়ে আসছেন তিনি। তার নির্মিতব্য ছবির নাম ‘রাত জাগা ফুল’।

২০১৮-১৯ অর্থবছরের অনুদান পাওয়া চলচ্চিত্রের তালিকায় ছিল মীর সাব্বিরের ছবির নাম। তিনি জানান, আসছে নভেম্বরে ‘রাত জাগা ফুল’-এর শুটিং শুরু করবেন। ইতোমধ্যে প্রি-প্রোডাকশন গুছিয়ে নিয়েছেন। শুধু তাই নয়, লোকেশন দেখাও ফাইনাল। সিনেমার শুটিং নভেম্বরে শুরু করলেও আগে থেকেই সব চূড়ান্ত করে ফেলেছি। এখন শুধু কাস্টিংয়ের বিষয়টি বাকি।

সাব্বির বলেন, ‘কাস্টিং চূড়ান্ত হয়নি। গল্পের চরিত্রের সঙ্গে মিল রেখে অভিনেতাদের সঙ্গে কথা বলছি, তবে এখনো পাকাপোক্ত হয়নি। শিগগির আমার ছবিতে কারা অভিনয় করছেন, এ বিষয়টি জানিয়ে দিতে পারব। শুধু এটুকু বলি, বড়পর্দার অভিনেতার পাশাপাশি ছোটপর্দার অভিনেতারাও থাকছেন আমার ছবিতে। আমার ছবিতে ট্র্যাডিশনাল নায়ক-নায়িকা হয়তো থাকবে না, কারণ আমার ছবির গল্পই নায়ক! ছবির গল্পের প্রয়োজনে অর্ধেক শুটিং হবে গ্রামের লোকেশনে, আর অর্ধেক শহরে।’

২০১৮-১৯ অর্থবছরের অনুদান পাওয়া চলচ্চিত্রের জন্য আটজন নির্মাতাকে দেওয়া হয়েছে ৩ কোটি ৯০ লাখ টাকা। অভিনেতাদের মধ্যে মীর সাব্বির ছাড়াও এই অর্থ বছরে ছবি নির্মাণের অনুদান পেয়েছেন চিত্রনায়িকা কবরী ও হূদি হক। তারা প্রত্যেকেই ছবি নির্মাণের জন্য পাচ্ছেন ৬০ লাখ টাকা।

মীর সাব্বির অভিনীত প্রথম নাটক ছিল বিটিভিতে প্রচারিত পুত্র। ২০০২ সালে অনন্ত হীরা পরিচালিত ‘বিষ কাঁটা’ নাটকে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন তিনি। এখন পর্যন্ত মীর সাব্বির ৬০টিরও বেশি খণ্ড নাটক, টেলিফিল্ম এবং তিনটি ধারাবাহিক নাটক ‘মকবুল’, ‘নোয়াশাল’, ‘মালেক হতে সাবধান’ নির্মাণ করেছেন। মীর সাব্বির চন্দন রায় চৌধুরীর নির্দেশনায় ‘কী জাদু করিলা’ সিনেমাতে অভিনয় করেছিলেন পপির বিপরীতে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads