• সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮

নির্বাচন এক ঘণ্টাও পেছানো যাবে না : আওয়ামী লীগ

আওয়ামী লীগের জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ টি ইমাম

সংগৃহীত ছবি

নির্বাচন

নির্বাচন এক ঘণ্টাও পেছানো যাবে না : আওয়ামী লীগ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৪ নভেম্বর ২০১৮

আওয়ামী লীগের জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ টি ইমাম বলেছেন, বিদেশিদের সুযোগ সুবিধা দেখে নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ ঠিক হবে না। নির্বাচনে পর্যবেক্ষক আসা নিয়ে তারিখ পেছানোর ঐক্যফ্রন্টের যে দাবি, তা যৌক্তিক নয়। আমাদের পরিষ্কার দাবি হচ্ছে, নির্বাচন আর পেছানো যাবে না। একঘণ্টার জন্যও নয়, একদিনের জন্যও নয়।

আজ বুধবার রাতে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

এর আগে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্টের একটি প্রতিনিধি দল ইসিতে গিয়ে নির্বাচন ৩ সপ্তাহ পেছানোর দাবি করেন।

বিএনপির দাবি হাস্যকর উল্লেখ করে এইচটি ইমাম বলেন, ‘এর আগেও ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচন হয়েছে সেসময় কিন্তু বড় দিন কিংবা ইংরেজি নতুন বছর কোনো সমস্যা হয়নি। ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন হলে কেউ যে আসবেন না তেমন কোনো বিষয় নয়। পৃথিবীর এমন কোনো দেশ নেই, যারা বিদেশিদের সুযোগ সুবিধার কথা ভেবে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক করে। আমরা একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ। আমরা আমাদের সুযোগ সুবিধা দেখব।’

ডিসেম্বরের পরে নির্বাচনের নেতিবাচক দিক তুলে ধরে তিনি বলেন, ডিসেম্বরের পরে নির্বাচন হলে পহেলা জানুয়ারি কয়েক লাখ নতুন ভোটার হবে। তারা যদি নিবন্ধিত না হয়, তাহলে আদালতে রিট করলে নির্বাচন ভণ্ডুল হয়ে যাবে। এটার দায়দায়িত্ব কে নেবে? এছাড়া বছরের প্রথমে স্কুলে নতুন বই বিতরণ করা হয়। সেখানেও সমস্যা দেখা দেবে।

পুনঃনির্ধারিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন ২ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর এবং ভোট গ্রহণ ৩০ ডিসেম্বর।

এদিকে, নয়াপল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় এইচ টি ইমাম বলেন, এ ঘটনায় বিএনপি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছে। এটিকে নির্বাচনপূর্ব সহিংসতা বিবেচনায় যথাযথ ব্যবস্থা নিতে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) প্রতি দাবি জানান তারা।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads