• সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮

একক প্রার্থী নিশ্চিত করতে চায় বিএনপি

লোগো বিএনপি

নির্বাচন

একক প্রার্থী নিশ্চিত করতে চায় বিএনপি

  • রেজাউল করিম লাবলু
  • প্রকাশিত ২০ নভেম্বর ২০১৮

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে কৌশলী বিএনপি। নিচ্ছে একের পর এক কৌশল। উদ্দেশ্য একটাই। আন্দেলনের অংশ হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। এ কারণে যেকোনো মূল্যে ৩০০ আসনে একক প্রার্থী নিশ্চিত করা। গতকাল বাংলাদেশের খবরকে এমনটাই জানিয়েছেন দলটির নীতিনির্ধারক পর্যায়ের নেতারা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক ভাইস চেয়ারম্যান বাংলাদেশের খবরকে বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সরকারকে ৭ দফা দাবি দিয়েছিল। সরকার একটা দাবিও মেনে নেয়নি। নির্বাচন কমিশনও (ইসি) সরকারের সহযোগী হিসেবে কাজ করছে। এ অবস্থায় ৩০০ সংসদীয় আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের একক প্রার্থী নিশ্চিত করতে চায়।

তিনি বলেন, গত রোববার থেকে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার শুরু হয়। প্রথমে রাজশাহী বিভাগের প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। এ সময় সকল মনোনয়ন প্রত্যাশীকে দলীয় মনোনয়ন ফরম দেওয়া হয় তা পূরণ করে ইসিতে জমা দেওয়ার জন্য। বলা হয় পরে দল যাকে চূড়ান্ত করবে তিনি ছাড়া বাকি সবাই তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করবেন। পরে এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে ইসিতে চিঠি দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। কারণ পরে যদি ইসি সব মনোনয়ন বাতিল করে দেয় এই ভয়ে।

ওই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, এর অংশ হিসেবে গতকাল বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য বিজন কান্তি সরকারকে দিয়ে ইসিতে চিঠি পাঠানো হয়। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত চিঠিতে জানতে চাওয়া হয়, কোন নির্বাচনী জোটের প্রত্যেক নিবন্ধিত দল একটি আসনে এক বা একাধিক প্রার্থী প্রাথমিক মনোনয়ন দিল। এরপর চূড়ান্ত মনোনয়নে জোটের একটি দলের একজন প্রার্থীকে ওই আসনে মনোনয়ন দেওয়া হলো। এর ফলে জোটের ওই আসনের অন্য বৈধ প্রার্থীর মনোনয়ন বলবৎ থাকবে কি না।

কৌশলী অবস্থান নেওয়ার বিষয়ে গুলশান কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা বাংলাদেশের খবরকে বলেন, আওয়ামী লীগ মনোনয়ন ফরম বিক্রির সময় প্রত্যেক মনোনয়ন প্রত্যাশীর কাছ থেকে একটি মনোনয়ন প্রত্যাহারের ফরমে স্বাক্ষর নেওয়া হয়। কিন্তু বিএনপি এমন ফরম আগে তৈরি করেনি। এখন তৈরি করা হয়েছে। শিগগিরই সকল মনোনয়ন প্রত্যাশীর মনোনয়ন প্রত্যাহারের ফরমে স্বাক্ষর নেওয়া হবে।

এদিকে গতকাল সকাল ৯টায় বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যরা মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নেন। প্রথমেই বরিশাল-১ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রকৌশলী আবদুস সোবহানকে ডাকা হয়। কি কারণে প্রার্থী হয়েছেন তার কাছে জানতে চায় মনোনয়ন বোর্ড। এরপর একে একে বিভাগের অন্য প্রার্থীদেরও ডাকা হয়। ভিডিও কনফারেন্সে তাদের বিভিন্ন প্রশ্ন করেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। বরিশাল বিভাগের পর বিকালে সাক্ষাৎকার নেওয়া হয় খুলনা বিভাগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের। এদিকে সাক্ষাৎকারকে কেন্দ্র করে গুলশান কার্যালয়ের সামনে ও আশপাশের এলাকায় উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করে। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সঙ্গে ভিড় করেন তাদের সমর্থক ও নেতাকর্মীরা।

সাক্ষাৎকার শেষে বের হয়ে বরিশাল-১ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ও সংস্কারপন্থি নেতা জহির উদ্দিন স্বপন উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, মনোনয়ন বোর্ডে অনলাইনে কথা বলেছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। সাক্ষাৎকালে একই আসনের ৮ জন মনোনয়ন প্রত্যাশীর সবাই ছিলাম। এক বাক্যে সবাই দলের কথা মেনে নেওয়ার অঙ্গীকার করেছি।

নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী, আজ মঙ্গলবার চট্টগ্রাম, কুমিল্লা ও সিলেট; আগামীকাল বুধবার ময়মনসিংহ, ফরিদপুর ও ঢাকা বিভাগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার হবে। মনোনয়ন বোর্ডে আছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, জমির উদ্দিন সরকার, মাহবুবুর রহমান, রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

ইশতেহার প্রস্তুত করছে বিএনপি-খসরু : মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকারের ফাঁকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ইশতেহার প্রস্তুত করছে বিএনপি। যার মূল বিষয়বস্তু হবে দুর্নীতিমুক্ত উন্নয়ন। তাতে থাকবে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা। খুব শিগগিরই সেটি প্রকাশ করা হবে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads