• শনিবার, ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
ভুল-ভ্রান্তি হলেও ইভিএমের বিকল্প নেই : সিইসি

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা

সংরক্ষিত ছবি

নির্বাচন

ভুল-ভ্রান্তি হলেও ইভিএমের বিকল্প নেই : সিইসি

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৫ এপ্রিল ২০১৯

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা বলেছেন, ইভিএম নিয়ে অনেক সমালোচনা থাকবে, কিছু ভুল-ভ্রান্তিও হবে, তবু ইভিএমের ব্যবহার করা হবে। কারণ সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে ইভিএম ব্যবহারের বিকল্প নেই।

গতকাল বুধবার ফরিদপুরে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে সিইসি এ কথা বলেন।

সিইসি বলেন, ‘অনেক সমালোচনা হচ্ছে ও হবে। এরপরও ইভিএম থেকে ফিরে আসব না। ইভিএম চালু হবে সব ভোটকেন্দ্রে। নির্বাচন ব্যবস্থাকে ডিজিটাল রূপ দেওয়াই আমাদের লক্ষ্য।’ ইভিএম চালু হলে অনেক সমস্যা কমে যাবে, দুর্নীতি কমে যাবে। স্মার্টকার্ডকে জাতির জীবনে একটি বিরাট অর্জন হিসেবে উল্লেখ করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, এটি মূলত একটি তথ্যভান্ডার হয়ে উঠবে। এই তথ্যভান্ডারে ওই ব্যক্তির যাবতীয় তথ্য মজুত থাকবে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ৪৬ জনের হাতে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দেন তিনি।

রোহিঙ্গাদের ভুল তথ্য দিয়ে ভোটার হওয়া প্রসঙ্গে সিইসি বলেন, রোহিঙ্গারা যখন এ দেশে প্রবেশ করেছে তার কিছুদিন পরই সব রোহিঙ্গাদের ১০ আঙুলের ছাপ নিয়ে রেখেছে সরকার। তাই ইচ্ছা করলেই ভুল নাম বা ভুল তথ্য দিয়ে রোহিঙ্গারা ভোটার হতে পারবে না।

ফরিদপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২৫ এপ্রিল থেকে ২৮ আগস্ট পর্যন্ত সদর উপজেলার ৩ লাখ ৩৬ হাজার ১০৪ জন ভোটারদের মধ্যে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ করা হবে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. আসলাম মোল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ফরিদপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা নুরুজ্জামান তালুকদার, ফরিদপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. লোকমান হোসেন মৃধা, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সাইফুজ্জামান, জেলা নির্বাচন অফিসার নায়বুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নূরুল আমীন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads