• সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৫
ads
ভবিষ্যতে সব নির্বাচনই ইভিএমে হবে : সিইসি

ছবি : সংগৃহীত

নির্বাচন

ভবিষ্যতে সব নির্বাচনই ইভিএমে হবে : সিইসি

  • বগুড়া প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২০ জুন ২০১৯

ভবিষ্যতে জাতীয় ও স্থানীয় সব নির্বাচনই ইভিএমে হবে। কারণ ইভিএমে ভোটগ্রহণ যেমন সহজ, তেমনি ভোটগ্রহণের এক দেড় ঘণ্টার মধ্যেই ফলাফল পাওয়া যায়। আগের মতো ভোটের ফলাফলের জন্য অপেক্ষার প্রহর গুনতে হবে না। ইভিএমে ভোটগ্রহণে ব্যালট নিয়ে দৌড়াদৌড়ি, কাড়াকাড়ি হবে না। এখন যে বিচ্ছিন্নভাবে ভোটগ্রহণ চলছে এটা তারই পূর্বপ্রস্তুতি বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা।

গতকাল বুধবার দুপুরে বগুড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সভাকক্ষে বগুড়া-৬ সংসদীয় আসনের নির্বাচন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে সংক্ষিপ্ত মতবিনিময়কালে এ কথা বলেন তিনি।

সিইসি বলেন, বগুড়ায় নির্বাচনী প্রচার ও পরিবেশ ভালো রয়েছে। আমরা আশা করি এখানে নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবেই সম্পন্ন হবে। বিএনপি এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করায় ভোটার উপস্থিতিও বেশি হবে। স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাকে নির্বাচনী এলাকার পরিস্থিতি সন্তোষজনক বলে জানিয়েছেন। বগুড়ার এই নির্বাচনে সেনা মোতায়েন হচ্ছে না। তবে ইভিএমের জন্য টেকনিক্যাল সাপোর্ট হিসেবে সেনা সদস্যরা থাকবেন।

তিনি আরো বলেন, এখানে আচরণবিধি মানার প্রবণতা ইতিবাচক। যারা ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা রয়েছেন তারা অতীত অভিজ্ঞতা থেকে আরো ভালোভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও ভোটাররা যদি ভোটকেন্দ্রে আসেন তা হলে প্রশাসনের ভার অনেকটাই কমে যায়। আশা করছি, এ আসনে প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচন হবে।

রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার মো. নূর-উর-রহমানের সভাপতিত্বে সভায়  আরো উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশন সচিব মো. আলমগীর। এ ছাড়া অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহম্মদ, পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞাসহ বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তারা। সভার আগে প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশন এবং পুলিশ বিভাগের কর্মকর্তাদের নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন সিইসি।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৪ জুন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ইভিএম ব্যবহার করে বগুড়া পৌরসভার ২১টি ওয়ার্ড ও সদর উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের ১৪১ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ করা হবে। মোট ৩ লাখ ৮৭ হাজার ৪৫৮ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। এ আসনে আওয়ামী লীগের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক টি জামান নিকেতা। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলের পক্ষে লড়ছেন জি এম সিরাজ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads