• মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০১৯, ১২ চৈত্র ১৪২৪
ads
রোকেয়া হলের প্রভোস্টকে পদত্যাগ করতেই হবে: ভিপি নুর

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি নুরুল হক নুর

ছবি : সংগৃহীত

শিক্ষা

রোকেয়া হলের প্রভোস্টকে পদত্যাগ করতেই হবে: ভিপি নুর

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১৪ মার্চ ২০১৯

ঢাবির রোকেয়া হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. জিনাত হুদাকে অবশ্যই পদত্যাগ করতে হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টায় রোকেয়া হলের অনশনরত ছাত্রীদের সমর্থনে এসে তিনি এ মন্তব্য করেন।

নুরুল হক বলেন, রোকেয়া হলের নির্বাচনে কারচুপি ও অনিয়ম হয়েছে। সে হিসেবে প্রভোস্ট হিসেবে থাকার নৈতিক অধিকার নেই।

রোকেয়া হল সংসদ নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগে পুনর্নির্বাচন ও হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক জিনাত হুদার পদত্যাগ দাবিতে অনশনে বসেন হলের আবাসিক পাঁচ ছাত্রী।

এর আগে একই দাবিতে গত বুধবার সকাল থেকে আন্দোলন শুরু করে হলের ছাত্রীরা। এসময় তাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাও প্রত্যাহারের দাবি করেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

সঙ্গত, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে শুরু হওয়া বিক্ষোভ আজ সকাল ৮টার দিকে কয়েক ঘন্টার জন্য বন্ধ ঘোষণা করেন তারা। পরে একই দাবিতে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন শুরু করে ছাত্রীরা। বিক্ষোভে হলের ছাত্রলীগ প্যানেলের প্রার্থীরা ছাড়া অন্য সব সংগঠনের প্রার্থী ও সমর্থকরা অংশ নিচ্ছেন।

রোকেয়া হলে প্রগতিশীল ছাত্রজোটের ভিপি প্রার্থী মুনিরা দিলসাদ ইলা বলেন, হল সংসদ নির্বাচন বাতিল ও প্রাধ্যক্ষের পদত্যাগ দাবীতে মেয়েরা বিক্ষোভ করলেও প্রাধ্যক্ষসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কেউ খোঁজ নেয়নি। ফোন দিলেও তারা ফোন ধরেননি৷

পূর্ণিমা দাস নামের আরেক ছাত্রী জানান, আমাদের হল সংসদে পুনর্নির্বাচন চায়, আর মামলা প্রত্যাহার করা হোক।

প্রসঙ্গত, সোমবার ডাকসু নির্বাচন চলাকালে রোকেয়া হলে ভোট কেন্দ্রের পাশের একটি কক্ষ থেকে তিন ট্রাংকে ফাঁকা ব্যালট পেপার উদ্ধার করাকে কেন্দ্র করে অস্থিরতা শুরু হয়। নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা পর ভোট শুরু এবং তার এক ঘণ্টা পর আবার ভোট বন্ধ হয়। কয়েক ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর বিকেল ৩টায় ফের ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads