• শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬
ads
মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

প্রি-পেইড মিটার স্থাপনে বাধাঁ দেওয়ায় গ্রাহকদের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে এলাকাবাসী

ছবি : বাংলাদেশের খবর

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

সোনারগাঁয়ে প্রি-পেইড মিটার স্থাপনে বাধা

মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

  • সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২৬ জুন ২০১৯

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দী ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকায় প্রি-পেইড মিটার স্থাপনে বাধাঁ দেওয়ায় গ্রাহকদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন সোনারগাঁ পল্লী সমিতি।

আজ বুধবার মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বাংলাবাজারে কয়েক হাজার নারীপুরুষ একত্রিত হয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে।

এসময় বক্তরা বলেন, জনগণের স্বার্থে এ প্রি-পেইড মিটার দেয়া বন্ধ করতে হবে। এ মিটারের দ্বিগুণ বিল গুনতে হয় গ্রাহকদের। এছাড়াও বিভিন্ন চার্জের নামে টাকা কেটে নেওয়া হয়। এ মিটার আমরা চাই না। তারপরও পল্লী বিদ্যুতের লোকজন জোড় পূর্বক এ মিটার লাগাতে আসে। গত সোমবার সকালে পল্লী বিদ্যুতের লোকজন সনমান্দি চরলাল এলাকার জোড়পূর্বক প্রি-পেইড মিটার লাগানো শুরু করে। এতে এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে বাধা দিলে পল্লী বিদ্যুতের লোকজনের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। পরে মঙ্গলবার বিকালে পল্লী বিদ্যুতের সমিতির সহকারী মহা-ব্যবস্থাপক সুজন কুমার সরকার বাদি হয়ে চরলাল গ্রামের ১১ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ শাখাওয়াত নামের এক গ্রাহককে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায়। পল্লী বিদ্যুতের দায়ের করা মিথ্যা মামলা দ্রুত প্রত্যাহারের দাবী জানান তারা।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া সনামান্দী ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি জামাল উদ্দিন জানান, প্রি-পেইড মিটার স্থাপনে এলাকাবাসী বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে পল্লী বিদ্যুতের লোকজনের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হওয়ায় তারা গ্রাহকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন। দায়ের করা মিথ্যা মামলা দ্রুত প্রত্যাহার না করা হলে পল্লী বিদ্যুৎ অফিস ঘেরাও করা হবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads