• শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
পাইকগাছা-কয়রা দ্রুত সময়ের মধ্যে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আসবে : এমপি বাবু

পাইকগাছার পাওয়ার গ্রীড স্টেশনের ভূমি অধিগ্রহণের সম্ভাবতা যাচাইয়ের লক্ষে প্রস্তবিত এলাকা পরিদর্শন করেন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু

ছবি : বাংলাদেশের খবর

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

পাইকগাছা-কয়রা দ্রুত সময়ের মধ্যে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আসবে : এমপি বাবু

  • পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

পাইকগাছা-কয়রার সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু বলেছেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের উন্নয়ন হয়, দেশের মানুষ শান্তিতে থাকে। আর বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় আসলে দেশ দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়।

আজ বুধবার সকালে পাইকগাছার শিববাটী ব্রীজ সংলগ্ন চকবগুড়া মৌজায় পাওয়ার গ্রীড স্টেশনের ভূমি অধিগ্রহণ সম্ভাবতা যাচাইয়ের লক্ষে প্রস্তাবিত এলাকা পরিদর্শনকালে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের রোল মডেল উল্লেখ করে এমপি বাবু বলেন, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনা দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন এ জন্য তার নেতৃত্বে দেশের সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। যার সুফল দেশের সকল মানুষ ভোগ করছে।

তিনি বলেন, তারেক রহমান এক সময় খাম্বার রাজনীতি করে দেশের মানুষের সাথে প্রতারণা করে কোটি কোটি টাকা দুর্নীতি করেছে। বিএনপি-জামায়াত বিদ্যুৎ খাতকে ধ্বংস করে দিয়েছে। শেখ হাসিনা সরকার ২০০৯ সালে ক্ষমতা গ্রহণ করে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্ত থেকে বিদ্যুৎখাতকে রক্ষা করে রেকর্ড পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদন করেছে। এখন দেশের কোথাও লোডশেডিং হয় না। সরকারের লক্ষ এখন দেশের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া। ইতোমধ্যে দেশের অনেক এলাকা শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় এসেছে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের তরুণ এ এমপি বলেন, খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে পাইকগাছা-কয়রায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের কাজ শেষ হবে। এটি সম্পন্ন হলে কোন এলাকা বিদ্যুৎ বিহীন থাকবে না। পাওয়ার গ্রীড স্টেশন স্থাপনের কাজও এগিয়ে চলছে। নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে এলাকাবাসী একদিকে যেমন নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ পাবে, অপরদিকে সর্বোচ্চ বিদ্যুৎ সুবিধা পাওয়ার কারণে এলাকার উন্নয়ন ও অগ্রগতি কয়েকগুণ বেড়ে যাবে।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হক, উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী মোহাম্মদ আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এলএ) মোঃ ইকবাল হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুলিয়া সুকায়না, ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা সেতু কুমার বড়–য়া, বিদ্যুৎ বিভাগের পিজিসিবি প্রকল্প কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম, অতিরিক্ত ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা হাবিবুল্লাহ বাহার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শিয়াবুদ্দীন ফিরোজ বুলু, জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুল মান্নান গাজী, আওয়ামী লীগনেতা আনোয়ার ইকবাল মন্টু, বিভূতি ভূষণ সানা, যুবলীগনেতা আব্দুর রাজ্জাক রাজু, এমএম আজিজুল হাকিম, আকরামুল ইসলাম, মোঃ আব্দুল গফফার মোড়ল, কবির উদ্দীন সরদার, ছাত্রলীগনেতা পার্থ প্রতীম চক্রবর্তী ও রায়হান পারভেজ রনি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads